Rajanya Haldar: বিজেপিতে যাচ্ছেন না বলে স্পষ্ট জানালেন রাজন্যা

এগরা: এগরার পানিপারুলের একটি ক্লাবের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরিষদের সভানেত্রী রাজন্যা হালদার (Rajanya Haldar)। বিজেপি’তে যোগ দিচ্ছেন না পরিস্কার জানিয়ে দিলেন৷ রাজন্য…

TMC Student Leader Rajanya Haldar

এগরা: এগরার পানিপারুলের একটি ক্লাবের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরিষদের সভানেত্রী রাজন্যা হালদার (Rajanya Haldar)। বিজেপি’তে যোগ দিচ্ছেন না পরিস্কার জানিয়ে দিলেন৷ রাজন্য হালদার বলেন ” বিজেপিতে যোগদান করার হলে ১০ মার্চ জনগর্জন সভার প্রস্তুতি সভাগুলো করতাম না। এরকম প্রস্তাব এলেও সেটি প্রত্যাখ্যান হয়েছে আমার দ্বারা। আমি মনে করি আমি মায়ের পক্ষে, মাটির পক্ষে সেখানে মানুষ শেষ কথা বলে।  চব্বিশে লোকসভা ভোটে টিকিট দেওয়া প্রলোভনে পা না-দেওয়াই ভালো। আকৃতজ্ঞতা আমার রক্তে নেই। আমার শিরায় শিরায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সেই জন্য এরকম প্রলোভন এলেও তুচ্ছ মনে করে এগিয়ে যেতে হবে “।

তিনি আরও জানিয়েছেন ” আমি অকৃতজ্ঞ হতে পারবো না। সমস্ত জল্পনার অবসান করে আমি প্রেস মিটে বলেছি, মিডিয়াকে উত্তর দিয়ে ক্লিয়ার করে দিয়েছি। ফেসবুকে পোষ্ট করেও বলে দিয়েছি বিজেপিতে আমি যাচ্ছিনা। বিজেপিতে যাওয়ার কোনো প্রশ্নই আসেনা। এমপি টিকিটের প্রলোভনেও আসে না। আমি মনে করি যে দলটি আমারা করি সেই দল সাধারণ মানুষের কথা অনেক বেশি ভাবে। সাধারণ মানুষের জন্যই এই জায়গায় আমার আসা। ২১শে জুলাইয়ের মঞ্চ থেকেই রাজন্যা, রাজন্যা হতে পেরেছে। তবে কোনো জল্পনাই নেই। একদম স্পষ্ট, আমি মা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পক্ষে রয়েছি, মা মাটি মানুষের পক্ষে রয়েছি, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পক্ষে রয়েছি। তৃণমূল দলের সিদ্ধান্ত শিরোধার্য “।

বস্তুত, সাম্প্রতিক কয়েকদিন ধরে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া থেকে টেলিভিশনে তৃণমূল নেত্রী রাজন্য হালদার বিজেপি’তে যোগ দিচ্ছেন। এই খবর প্রচারিত হতেই বেকায়দায় পড়ে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এগরার বিধায়ক তরুণ কুমার মাইতি, এগরা ২ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি শাহনাজ বেগম, পানিপারুল গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান রঞ্জিতা প্রধান, কাউন্সিলর জয়ন্ত সাহু, উদয়শঙ্কর সর, নিশিকান্ত জানা, আইয়ুব খান ও জয়রাম প্রধান-সহ অন্যন্যরা।