তৃণমূল নেতাদের ঘুষ দিয়ে পাওয়া চাকরি হারাতে চলেছে শিক্ষকরা

40

পুজোর মুখে চাকরি হারাতে পারেন একাধিক শিক্ষক। বুধবার এমনটাই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। সেইসঙ্গে কতজন বেআইনিভাবে চাকরি পেয়েছেন সে বিষয়ে খোঁজ লাগিয়ে রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি। আর এরপরেই বৃহস্পতিবার বেআইনি নিয়োগ খুঁজে বের করতে উদ্যোগ নিল স্কুল সার্ভিস কমিশন।

সূত্রের খবর, বিকেল ৫ টা নাগাদ শুরু হয়েছে কমিশনের ত্রিপাক্ষিক বৈঠক। কমিশনের দফতরেই হবে বৈঠক। আজকের এই বৈঠকে রয়েছেন কমিশনের আইনজীবী, মামলাকারীদের আইনজীবী এবং মধ্য শিক্ষা পর্ষদের সদস্যরা।

কমিশন, সিবিআই ও আদালতের এহেন তৎপরতা দেখে সকলেই আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন যে আগামী সপ্তাহের মধ্যে বহু মানুষ চাকরি হারাতে পারেন ।

গতকাল বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, বিচারপতি বলেন, ‘‘গত এপ্রিল মাস থেকে মামলা চলছে, প্রকৃত যোগ্য প্রার্থীরা এখনও চাকরি পাননি। তাঁদের দ্রুত চাকরির ব্যবস্থা করতে হবে তো।’’ বেআইনি ভাবে যাঁরা চাকরি পেয়েছেন, তাঁদের বরখাস্ত করা হবে। ২৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যেই এসএসসি এবং সিবিআইকে এ সংক্রান্ত রিপোর্ট দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি।

বৃহস্পতিবারের বৈঠকে মূলত মেধাতালিকা ও ওয়েটিং লিস্ট খতিয়ে দেখা হবে।