INC: মুখ্যমন্ত্রী নাকি কংগ্রেস সভাপতি, রাহুলের প্যাঁচে ঘেঁটে ঘ গেহলট

রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রীর মুখ বদলের প্রবল সম্ভাবনা। সচিন পাইলটের পাল্লা ভারি।

39

কংগ্রেস (INC) সভাপতি নির্বাচন নিয়ে তীব্র রাজনৈতিক কৌতুহল। গান্ধী পরিবারের বাইরে হতে চলা সর্বভারতীয় কংগ্রেস (AICC) সভাপতির পদ পেতে নাছোড়বান্দা অশোক গেহলট। তিনি রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী। এখানেই দলীয় নিয়মের প্যাঁচে পড়ে খাবি খাচ্ছেন। দলের (Congress) সর্বোচ্চ পদ ও মুখ্যমন্ত্রীত্ব দুটো একসাথে নেওয়া যাবে না। এই নিয়মেই রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi) অনড়।

রাহুল গান্ধীর বক্তব্যে স্পষ্ট, কংগ্রেসের সভাপতি পদের দৌড়ে থাকা অশোক গেহলট যদি সভাপতি পদে নির্বাচিত হন, সেক্ষেত্রে দলীয় নিয়ম অনুযায়ী তাঁকে মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে পদত্যাগ করতে হবে। তিনি বলেছেন, আমি এক ব্যক্তি এক পদ নীতিতে বিশ্বাস করি। উদয়পুরের চিন্তন শিবিরে ওই নীতি গৃহীত হয়েছে। দল ওই নীতি মেনে চলবে।

কংগ্রেসের সভাপতি পদে দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন অশোক গেহলোট। তিনি গান্ধী পরিবারের ঘনিষ্ঠ। ধরে নেওয়া হচ্ছে, গেহলট সভাপতি নির্বাচিত হন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী হতে চলেছেন সচিন পাইলট। রাজস্থান প্রদেশ কংগ্রেসে গেহলট বনাম পাইলট দ্বন্দ্ব প্রবল। তরুণ প্রজন্মের মুখ সচিন কে মুখ্যমন্ত্রী করতে মরিয়া রাহুল গান্ধীর শিবির। এদিকে রাহুল গান্ধীর ভারত জোড়ো যাত্রায় অংশ নিয়েছেন সচিন পাইলট। পদযাত্রা চলছে সিপিআইএম তথা এলডিএফ শাসিত কেরলে।

অশোক গেহলোট বলেছেন, নির্বাচিত কোনও পদের ক্ষেত্রে এক ব্যক্তি এক পদ নীতি খাটে না। মুখ্যমন্ত্রী থেকেও দলের সভাপতি হওয়া যায়। তাঁর বক্তব্য, নির্বাচনে জিতে মুখ্যমন্ত্রী হয়েছি। দলের সভাপতি হলেও ভোটে লড়াই করে ওই পদে বসব।

গত দু দশকের ধারা বদলে এবার কংগ্রেস সর্বভারতীয় সভাপতি নির্বাচনে গান্ধী পরিবার নেই। কংগ্রেসের সভাপতির দৌড়ে রয়েছেন অশোক গেহলট, শশী থারুর। এছাড়া মনীশ তিওয়ারি, কমলনাথ ও দিগ্বিজয় সিং।