Friday, February 3, 2023

Qatar WC: রক্ষণশীলতার জাল কেটে ‘যখন বাজবে বাঁশি’…চিরন্তনী নজিরের অপেক্ষায় বিশ্ব

- Advertisement -

সুজানা ইব্রাহিম মোহনা, দোহা: মধ্যপ্রাচ্যের রক্ষণশীল কাতার দেশটি বিশ্বকাপের (Qatar WC) আসরে বিভিন্ন বিধিনিষেধ দিয়েছে। আবার এই দেশের মাঠেই নারী নিয়ন্ত্রণে হবে পূর্ণাঙ্গ ম্যাচ। যেটি কিনা ফুটবল বিশ্বকাপের প্রথম গোলের মতো অভঙ্গুর। চাইলেও এই নজির কারোর পক্ষে ভাঙা সম্ভব নয়। সময় কাউকে দেবে না নজির ভাঙার সুযোগ।

১৯৩০ সালে প্রথম বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হয়েছিল উরুগুয়েতে। সেবার বিশ্বকাপের প্রথম দুটি ম্যাচ যুগপৎভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছিল ফ্রান্স ও মেক্সিকোর মধ্যে।  খেলায় ৪-১ গোলে ফ্রান্স জয়ী হয় ফ্রান্স। বিশ্বকাপের প্রথম গোলটি করেছিলেন ফ্রান্সের লুসিয়েন লরেন্ত। তিনিই এই নজিরের চিরন্তন নায়ক।

৯২ বছর পর কাতার বিশ্বকাপে জার্মানি ও কোস্টারিকার ম্যাচের মূল রেফারির ভূমিকায় থাকবেন ফ্রাপার্ট। আল বায়াত স্টেডিয়ামে ফ্রাপার্টকে সহযোগিতা করবেন ব্রাজিলের নিউজা ও মেক্সিকোর কারেন দিয়াজকে।  তিনজনই চিরন্তনী।

- Advertisement -

কাতারেই হচ্ছে এই ইতিহাস! এই প্রথমবার বিশ্বকাপে কোনো ম্যাচ সম্পূর্ণ পরিচালনা করবেন তিন নারী। ফিফার তরফে এমন ঘোষণার পর পড়েছে হই হই। ফুটবলে নারী রেফারির উপস্থিতি নতুন কিছু নয়। গত কয়েক বছর ধরে এমন দৃশ্য দেখা যায়। কিন্তু বিশ্বকাপ ফুটবলের কোনও ম্যাচ সম্পূর্ণ নারী রেফারি দিয়ে পরিচালনা করা প্রথমবার।

ফিফা জানিয়েছে, এবারের বিশ্বকাপে নারী রেফারি হিসেবে অভিষেক হয়েছে স্টিফানি ফ্রাপার্টের। এবার নারী রেফারির পরিচালনায় মাঠে গড়াতে যাছে ম্যাচ।

জার্মানি ও কোস্টারিকার ম্যাচের মূল রেফারির ভূমিকায় থাকবেন ফ্রাপার্ট। আল বায়াত স্টেডিয়ামে ফ্রাপার্টকে সহযোগিতা করবেন ব্রাজিলের নিউজা ও মেক্সিকোর কারেন দিয়াজকে।  এর আগে বিশ্বকাপে মেক্সিকো-পোল্যান্ড ম্যাচে এই ফরাসি নারী  ছিলেন চতুর্থ রেফারি।

ম্যাচে রেফারির অভিজ্ঞতার অনুভূতি ফ্রাপার্ট প্রকাশ করেন এটা আমাদের জন্য আনন্দের। আমাদের শান্ত থাকতে হবে, মনোযোগ ধরে রাখতে হবে। কেবল মাঠে মনোনিবেশ করতে হবে।

ফরাসি নারী রেফারি ফ্রাপার্ট আরও বলেন, সবসময় আমাকে স্টেডিয়ামে স্বাগত জানানো হয়েছে। তখন নিজেকে মাঠের অন্য পাশের রেফারির মতো মনে হতো। আশা করছি আগের মতোই আমাকে স্বাগত জানানো হবে।

ফ্রাপার্ট ছাড়াও এই বিশ্বকাপে নারী রেফারি হিসেবে কাজ করছেন রোয়ান্ডার সালিমা মুকাসাংগা, জাপানের ইয়োশিমি ইয়াশিতা।

২০২০ সালে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে প্রথম নারী রেফারি হিসেবে অভিষেক হয় ফ্রাপার্টের। তার আগে ইউরোপিয়ান সুপার কাপের ফাইনালে লিভারপুল ও চেলসি ম্যাচে দায়িত্ব পালন করেন তিনি।  পুরুষ ও নারী মিলিয়ে এবারের বিশ্বকাপে মোট রেফারি হিসেবে নিযুক্ত আছেন ৩৬ জন।