Qatar WC: ‘আল হাবিবি…আল হাবিবি’ আজ কোরিয়া জিতলেই সাত খুন মাফ!

35

সুজানা ইব্রাহিম মোহনা, দোহা সিটি: পরপর তিনদিন বিজয় উল্লাসে মাতবে এশিয়া? সকালে দোহা শহরের সর্বত্র একই প্রশ্ন শুনছি। মঙ্গলে আরব জয়োল্লাস, বুধে জাপান জয়োল্লাস আর বৃহস্পতির সকাল থেকে আল হাবিবি…আল হাবিবি কোরিয়া! (My Love, My Love South Korea) চিৎকার শুরু হয়ে গেছে। কাতারের আম আদমিরা বুকে হাত রেখে আর একটা জয়ের অপেক্ষায়। মুখে সংক্ষেপে কোরিয়া বললেও আদতে দক্ষিণ কোরিয়ার জন্যই গলা ফাটাতে দেখা যাবে কাতারি-আরবি-কুয়েতি-বাহরিনি-ইরানি সহ পুরো মধ্যপ্রাচ্যের বাসিন্দাদের। এরা সবাই বিশ্বকাপে (Qatar WC) এশিয়ার জয় দেখতে মরিয়া।

দুবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন শক্তিশালী উরুগুয়ের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ কোরিয়া। ফের দক্ষিণ আমেরিকা ও এশিয়ার বল দখলের লড়াই নিয়ে তেতে উঠছেন সবাই। দুবারের বিশ্বজয়ী আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে সৌদি আরবের ঐতিহাসিক জয়ের পর থেকে পুরো বিশ্ব সরগরম। তায় আবার বুধবার জাপানের কাছে হেরেছে চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানি। এবার দক্ষিণ কোরিয়া কিছু করুক এমনই হাওয়া বইছে।

কাতার জুড়ে একটা কানাকানি চলছে দক্ষিণ কোরিয়ার শত্রু উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উন কি ফের ক্ষেপে যাবেন? নাকি বিশ্বকাপের মাঠে শত্রু দেশের ভালো কিছু খবর হলে সাত খুন মাফের মতো ভূমিকা নেবেন। হাজার হোক তিনিও কোরীয় জাতির লোক।

উত্তর কোরিয়ার একনায়ক শাসক কিম জং উনের মিসাইল হামলায় এই কয়েকদিন আগেও জাপানবাসী ভয়ে মাটির তলায় ঢুকে গেছিলেন। উত্তর কোরিয়ার শাসক কিমের প্রবল লক্ষ্য কী করে প্রতিবেশি দক্ষিণ কোরিয়ার মনে সবসময় ভয় ধরানো যায়। এমনিতে কিমের ভয়ে মুরগি ছানার মতো কাঁপে দক্ষিণ কোরিয়া,জাপান। বিপুল মিসাইল শক্তি ও পরমাণু শক্তিধর দেশ উত্তর কোরিয়ার জন্য চিন্তায় থাকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। বেপরোয়া কিমের তাতে কিছু যায় আসেনা।

আজ সকালে যখম কাতারের সংবাদপত্রে চোখ রেখেছি তখনই দেখছি কিম জং উনের বোন যিনি উত্তর কোরিয়ার অলিখিত দ্বিতীয় সর্বাধিক ক্ষমতাধর তিনি দক্ষিণ কোরিয়ার সরকারকে বলেছেন ইডিয়ট ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কুকুর। এর পর থেকে মনে করা হচ্ছে ফের মিসাইল ছুঁড়ে কুটিলা হাসি দিতে চলেছেন উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উন।

নিজ দেশ নেই বিশ্বকাপে। সর্বত্র আলোচনা উত্তর কোরিয়ার শাসক চান যুদ্ধের ভয় দেখিয়ে দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের উপর মানসিক চাপ তৈরি করতে। এই সংকট নিয়েই দক্ষিণ কোরিয়া নামছে মাঠে। তাদের গতিশীল ফুটবল ও দীর্ঘ বিশ্বকাপ অভিযান অভিজ্ঞতা বনাম উরুগুয়ের মনাতানো খেলা হবে। কাতারবাসী বলছেন আল হাবিবি কোরিয়া।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)