Qatar WC: খেলা হবে! বিশ্বকাপের আগেই ৬০ কোটিতে ম্যাচ কিনছে কাতার?

45

কাতারের (Qatar) কাছ কোটি কোটি টাকা হাতের ময়লা। তেল বাণিজ্যের কৃপায় বিপুল ঐশর্যের অধিকারী দেশটি। বিশ্বকাপের (Qatar WC)  আয়োজক দেশ হিসেবে খেলতে নামার আগেই ৭.৪ মিলিয়ন আমেরিকান ডলার (US dollar) ঘুষ দিয়ে ম্যাচ কেনার (Match Fixing) বিতর্কে জড়িয়েছে তারা।

কাতারকে ম্যাচ ছেড়ে দেবে ইকুয়েডর? বিশ্বকাপের আগেই বিস্ফোরক প্রশ্নে বিশ্ব আলোড়িত

ভারতীয় টাকার অংকে হিসেব করলে হয় ৬০ কোটি। এই পরিমাণ টাকা দিয়ে বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচটি কিনে নিতে মরিয়া কাতার সরকার। লক্ষ্য যে করেই হোক বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ হিসেবে খেলার মাঠে একটি দাগ রেখে যাওয়া। প্রতিপক্ষ দল দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ই়কুয়েডর। অভিযোগ সেই দেশের কাছে গোপনে ৭.৪ মিলিয়ন আমেরিকান ডলার পাঠিয়েছে কাতার।

ম্যাচ কেনার অভিযোগ তুলেছেন মধ্যপ্রাচ্যের ব্রিটিশ গবেষণা কেন্দ্রের আঞ্চলিক প্রধান আমজাদ তাহা। তাঁর বিস্ফোরক দাবি, ইকুয়েডর ম্যাচ ছেড়ে দেবে কাতারকে।  উদ্বোধনী ম্যাচে জয়ের জন্য ইকুয়েডরের আটজন ফুটবলারকে ৭.৪ মিলিয়ন ডলারকে ঘুষ দিয়েছে কাতার। দ্বিতীয়ার্ধে করা গোলে ইকুয়েডরকে হারাবে কাতার। তিনি আরও দাবি করেন,  কাতারের পাঁচজন এবং ইকুয়েডর শিবিরের ভিতর থেকেই এমন খবর পাওয়া যাচ্ছে। তবে আশাকরি এটা ভুল খবর।  ফিফা এই দুর্নীতির বিরোধিতা করুক। 

আমজাদ তাহার বিস্ফোরক টুইট বিশ্বকাপের আগে বিতর্কের বিস্ফোরণ ঘটালো। তিনি লিখেছেন, “Exclusive: Qatar bribed eight Ecuadorian players $7.4 million to lose the opener(1-0 2nd half). Five Qatari and Ecadour insiders confirmed this. We hope it’s false. We hope sharing this will affect the outcome. The world should oppose FIFA corruption.”

রবিবার বিশ্বকাপ শুরু। ইকুয়েডরের বিপক্ষে মাঠে নামবে কাতার। অভিযোগ তোলা হয়েছে কাতারকে নাকি ম্যাচ ছেড়ে দেবে ইকুয়েডর। বিশ্বকাপ যুদ্ধের প্রথম ম্যাচেই জয় চায় কাতার। আয়োজক দেশ হিসেবে এটা জরুরি বলে মনে করছে কাতার। অভিযোগ, জয় নিশ্চিত করতে ইকুয়েডরের ৮ জন ফুটবলারকে সাত মিলিয়ন আমেরিকান ডলারের বেশি ঘুষ দিয়েছে কাতার ফুটবল সংস্থা।

বিতর্ক আরও বেড়েছে বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে নিজের দেশের হয়ে গ্যালারিতে থাকছেন না ইকুয়েডরের প্রেসিডেন্ট। তিনি কেন আসছেন না? এই প্রশ্নের পরই ইকুয়েডরকে বিপুল অর্থ দিয়ে ম্যাচ কেনার বিতর্কে জড়াল কাতার।

Al jazeera জানাচ্ছে, এই বিস্ফোরক টু়ইটের পর ফিফার অন্দরমহলে ভূমিকম্প হয়ে গেছে।

Gulf News জানাচ্ছে, বিশ্বকাপ শুরুর আগেই বিরাট ঘুষ বিতর্কে জড়াল কাতার। ইকুয়েডর কি সত্যি করেই হারবে?

Indide Sports জানাচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের ব্রিটিশ সেন্টারের অধিকর্তার টুইটে সরকারিভাবে ম্যাচ গড়পেটার ইঙ্গিত মিলেছে।

Reuters জানাচ্ছে, ইকুয়েডরের প্রেসিডেন্ট গুইল্লারমো লাসো বলেছেন, আমি কাতারের আমিরকে ধন্যবাদ জানাই আমন্ত্রণ করার জন্য। জাতীয় নিরাপত্তার খাতিরে আমি বিশ্বকাপ উদ্বোধনী ম্যাচে থাকতে পারব না। তবে ভাইস প্রেসিডেন্ট থাকবেন।

কাতারকে ম্যাচ ছেড়ে দেবে ইকুয়েডর? বিশ্বকাপের আসরে এটাই বড় প্রশ্ন।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)