ওড়িশা এফসির কাছে হারের জেরে ইস্টবেঙ্গল খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধে মন্তব্য কোচ স্টিফেন কনস্টাটাইনের

162
East Bengal coach Stephen Constantine

ওড়িশা এফসির (Odisha FC) কাছে হেরে গিয়ে ইস্টবেঙ্গল এফসির (East Bengal) ফুটবলারদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসলেন কোচ স্টিফেন কনস্টাটাইন।প্রথমার্ধে ২-০ গোলে লিড নিয়েছিল লাল হলুদ ব্রিগেড। কিন্তু গোলের এই লিড ধরে রাখতে পারেনি ইভান গঞ্জালেস, অঙ্কিত, কমলজিৎরা।

খেলার দ্বিতীয়ার্ধে ‘ইস্টার্ন ড্রাগনর্স’ ফণা তুলে লাল হলুদ ব্রিগেডকে ছারাখার করে দিয়েছে।ওড়িশার হয়ে পেদ্রোর জোড়া গোল সঙ্গে জেরি এবং নন্দ কুমারের গোল, খেলার ফলাফল ২-৪ গোলে জয় ওড়িশা এফসির, ইস্টবেঙ্গল এফসির।

ঘরের মাঠ যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে মুখ পুড়েছে ইস্টবেঙ্গল এফসির।গোটা শিবির জুড়ে থমথমে পরিবেশ। কেউ কারোর সঙ্গে কথা বলছে না হারের ধাক্কাতে।গোটা টিমটাই গুটিয়ে রয়েছে।গুমোট আর অস্বস্তিকর পরিবেশকে ইস্টবেঙ্গল খেলোয়াড়দের জন্য আরও দমবন্ধ করে তুলেছে লাল হলুদ কোচ স্টিফেন কনস্টাটাইনের ফুটবলারদের নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য।

কি সেই বিতর্কিত? মন্তব্য যার জেরে ইস্টবেঙ্গল এফসির অন্দরমহল থেকে শুরু করে বাইরে লাল হলুদ ঝড় উঠেছে।খেলা শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ইস্টবেঙ্গলের বৃটিশ কোচ স্টিফেন কনস্টাটাইন ওড়িশা এফসির বিরুদ্ধে নিজের দলের খেলোয়াড়দের সরাসরি কাঠগড়ায় তুলে দিয়ে বলেন,”বিরতির সময়ে আমি ছেলেদের বলেছিলাম, স্কোর কী, তা ভুলে যাও। কারণ, ওরা আক্রমণে আরও খেলোয়াড় আনবে আর দ্রুত গোল শোধ করার চেষ্টা করবে।”

এরপরেই কনস্টাটাইন ইস্টবেঙ্গল খেলোয়াড়দের টার্গেট করে ‘বিস্ফোরক মন্তব্য’ করতে গিয়ে বলেন,” দ্বিতীয়ার্ধে আমাদের ছেলেরা পুরোপুরি সুইচ অফ করে দিল। স্কুলের ছেলেদের মতো ভুল করতে শুরু করল। ওদের(ওড়িশা এফসি) খেলোয়াড়দের অরক্ষিত অবস্থায় ছেড়ে রাখল। ওদের ভাল ভাল খেলোয়াড় আছে। তারাই আমাদের ভুলের শাস্তি দিল। এই ধরনের ভুল স্কুলের ছেলেরাও করে না। “

ওড়িশা এফসির বিরুদ্ধে লজ্জার হারের পর লাল হলুদ খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধে তোপ দেগে,টিমের ফুটবলারদের অভিযুক্ত হিসেবে কাঠগড়ায় তুলে আখেরে ইস্টবেঙ্গল এফসি কোচ স্টিফেন কনস্টাটাইন দলের ভিতরেই নিজেই নিজের বিরুদ্ধে ফ্রন্ট খুলে বসলেন।আগামী দিনে ইস্টবেঙ্গল এফসি কোচ হিসেবে কনস্টাটাইন কতদূর এগোতে পারবেন এবং নিজে কতটা এগোতে চাইবেন তা নিয়ে চর্চা ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছে লাল হলুদ জনতা।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)