Sourav Ganguly: ছোটদের উদেশ্যে পড়াশুনার পাশাপাশি খেলাধুলায় মনোযোগ দেওয়ার বার্তা সৌরভের

15
Sourav Ganguly

নেতা হিসাবে তাঁর দক্ষতা সকলের জানা। ভারতীয় দলের অধিনায়কত্ব থেকে বিসিসিআই সভাপতির আসন, সবটাই অবলীলায় সামাল দিয়েছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (Sourav Ganguly)। এবার নতুন ভূমিকায় সৌরভ। ছোটদের হয়ে এবার ব্যাট ধরলেন প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক। পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলোকেও ছোটদের শিক্ষার অঙ্গ হিসাবে যোগ করার আবেদন দাদার।১৪ নভেম্বর ছিল জাতীয় শিশু দিবস এবং আর একদিন পরেই পালিত হবে আন্তর্জাতিক শিশু দিবস।

সেই উপলক্ষ্যেই ইউনিসেফের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ছোটদের হয়ে মাঠে নেমেছেন সৌরভ। তাঁর মতে খেলাধুলো অনেক কিছু শেখায়, যা জীবনের নানা সময়ে সকলেরই কাজে লাগে। ইউনিসেফের হয়ে এক ভিডিও বার্তায় সৌরভ বলেন, ‘ছোটদের তরফে আমি অনুরোধ করছি যাতে সকলেই খেলার সুযোগ পায় এবং খেলাধুলোকে যেন তাদের স্কুলের শিক্ষার এক গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসাবে যোগ করা হয়।’ সৌরভের এই ভিডিও বার্তা ইউনিসেফের বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া মাধ্যমেও শেয়ার করা হয়েছে।

নিজের বার্তায় সকলের খেলাধুলোর পাশাপাশি শিক্ষা পাওয়ার অধিকার নিয়েও কথা বলেন মহারাজ। ‘জাতি, ধর্ম, বর্ণ, লিঙ্গ, নির্বিশেষে সকল শিশুরই ভাল শিক্ষা পাওয়ার অধিকার আছে। মহিলাদের শিক্ষায় নিয়োগ করলে, তা কিন্তু ভবিষ্যতে জাতি, দেশ এমনকী গোটা বিশ্বকেও বদলে দিতে পারে। তাই আমি সকলের কাছে অনুরোধ করছি, সবাই মিলে আমরা যেন এটা নিশ্চিত করতে পারি যে সব বাচ্চারা যেন স্কুলে যাওয়ার সুযোগ পায় এবং তারা যেন পড়াশুনা চালিয়ে যেতে পারে।’

একজন কলেজ পড়ুয়া মেয়ের বাবা হিসাবে আবেদন করেন সৌরভ। ইউনিসেফের তরফে প্রতি বছরই জাতীয় শিশু দিবস (১৪ নভেম্বর) থেকে আন্তর্জাতিক শিশু দিবস (২০ নভেম্বর) পর্যন্ত গোটা সপ্তাহ জুড়ে ছোটদের বিভিন্ন বিভাগে সাফল্যের গল্পগুলিকে তুলে ধরা হয়। আন্তর্জাতিক সংস্থার তরফে এই বছরে ছোটদের খেলাধুলো বিষয়ক বিভিন্ন সাফল্যকেই তুলে ধরার চেষ্টা করা হচ্ছে। এই উদ্যোগেই তাঁরা সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে পাশে পেয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গের ইউনিসেফের প্রধান মহম্মদ মহিউদ্দিন মনে করেন সৌরভের মতো পরিচিত এবং বিখ্যাত এক ব্যক্তির এই উদ্যোগে যোগ হওয়ায়, অনেক বেশি করে মানুষজন ছোটদের নিয়ে ভাবনাচিন্তা করার, তাদের খেলাধুলো, শিক্ষার সুযোগ তৈরি করে দেওয়ায় উদ্বুদ্ধ হবেন। সৌরভ ছোটদের ক্রীড়াবিভাগে সাফল্য নিয়ে তৈরি ‘হিরোজ’ নামক এক সিনেমারও পাশে দাঁড়িয়ে নিজের সমর্থন জানিয়েছেন। এই সিনেমার মাধ্যমে খুদে ক্রীড়াবিদদের জীবন যাপন, তারা যে প্রতিকূলতার সম্মুখীন হয়, সেইসব প্রতিকূলতা এবং ক্রীড়াক্ষেত্রে তাদের সাফল্যের নানা কাহিনী তুলে ধরা হয়েছে।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)