East Bengal: বড়দের হারের বদলা নিল লাল-হলুদের ছোটরা, খুশি বিনো জর্জ

ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ দিনে আইএসএলের অন্যতম শক্তিশালী ক্লাব ওডিশা এফসির মুখোমুখি হয়েছিল ক্লেটনরা। দলের অন্যতম তরুণ ফুটবলার পিভি বিষ্ণুর করা গোলে দল এগিয়ে থাকলেও তা…

East Bengal Footballers Triumph Over Odisha FC

ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ দিনে আইএসএলের অন্যতম শক্তিশালী ক্লাব ওডিশা এফসির মুখোমুখি হয়েছিল ক্লেটনরা। দলের অন্যতম তরুণ ফুটবলার পিভি বিষ্ণুর করা গোলে দল এগিয়ে থাকলেও তা বেশিক্ষণ ধরে রাখা সম্ভব হয়নি ইস্টবেঙ্গল (East Bengal) ক্লাবের। প্রতিপক্ষ দলের দাপুটে ফুটবলার দিয়াগো মরিসিওর করা গোলে সমতায় ফিরেছিল সার্জিও লোবেরার ছেলেরা।‌

পরবর্তীতে একাধিক গোলের সুযোগ আসলেও ফিনিশ করা আর সম্ভব হয়নি কার্লোস কুয়াদ্রাতের ছেলেদের। শেষ পর্যন্ত এক গোলের ব্যবধানে ম্যাচ হারতে হয়েছিল কলকাতা ময়দানের এই প্রধানকে। যারফলে বর্তমানে দাঁড়িয়ে চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াইয়ে টিকে থাকা অনেকটাই কঠিন হয়ে গিয়েছে মহেশদের। তবে এবার কয়েকটা দিনের পর ওডিশা বধ করল লাল-হলুদের ফুটবলাররা। যা দেখে স্বাভাবিকভাবেই ইতিবাচক বিনো জর্জ।

তবে এবার জুনিয়র ফুটবলাররা। পূর্ব নির্ধারিত সূচী অনুযায়ী আজ নিজেদের ঘরের মাঠে ওড়িশা এপ্রিল মুখোমুখি হয়েছিল ইমামি ইস্টবেঙ্গলের ছোটরা। রিলায়েন্স ডেভেলপমেন্ট লিগের এই কোয়ালিফায়ার ম্যাচে ২-১ গোলের ব্যবধানে জয় ছিনিয়ে নিল বিনো জর্জের ছেলেরা। দলের হয়ে গোল পান যথাক্রমে শ্যামল বেসড়া এবং তনময় দাস।

প্রথমার্ধের শেষের দিকে দলের হয়ে গড়ে তুলে নিয়েছিলেন শ্যামল। পরবর্তীতে ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি থেকে শেষ মুহূর্তে গোল করে দলকে জেতান তন্ময়। যারফলে, অ্যাডামস ম্যাচে আটকে যাওয়ার পর নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচ থেকেই ঘুরে দাঁড়ালো মশাল ব্রিগেড।

তাই ম্যাচ শেষে যথেষ্ট খুশি থাকতে দেখা যায় যুব দলের কোচকে। বিনো জর্জ বলেন, দল এখন যথেষ্ট উন্নতি করছে। তাছাড়া এটাই একমাত্র রাস্তা যেখান থেকে সিনিয়র দলের জন্য ফুটবলার তৈরি করা যাবে। আগামী দিনে সিনিয়র দলের জন্য নতুন নতুন প্রতিভাদের সুযোগ করে দেওয়াই ডেভেলপমেন্ট লিগের অন্যতম উদ্দেশ্য।