TET Scam: টেট নিয়োগে সিবিআইয়ের রিপোর্ট দেখে বিস্মিত বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়

21
abhijit gangopadhyay

প্রাথমিক শিক্ষক পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে দুর্নীতি (TET Scam) হয়েছে। তা আগেই আন্দাজ করতে পেরে সিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি৷ এমনকি আদালতের তত্ত্বাবধানে সিবিআই তদন্তের জন্য সিট গঠন করেছিলেন তিনি৷ বুধবার সিবিআইয়ের তরফে সেই রিপোর্ট জমা পড়েছে যা দেখে কার্যত বিস্মিত বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়৷ তাঁর কথায়, নিয়োগের ক্ষেত্রে চুড়ান্ত বেনিয়ম হয়েছে৷ যা জনসমক্ষে এলে শিহরিত করবে৷

যেটা মনে করা হচ্ছে, বিচারপতির এই মন্তব্য এক লাইনের হলেও নিয়োগ নিয়ে সিবিআইয়ের আইনজীবীরা আদালতের কাছে যে সমস্ত তথ্য তুলে ধরবছিলেন, তার কিছুটা হাতে পেয়েছেন বিচারপতি। সেখানে উল্লেখ্য রয়েছে, বেনিয়মে নম্বর বাড়িয়ে যেমন নিয়োগ হয়েছে, তেমনই নিয়োগ হয়েছে সাদা খাতা জমা দিয়েও। এছাড়াও সিবিআইয়ের বিশেষ দল প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে যে সমস্ত তথ্য তাতে স্পষ্ট, মেয়াদ শেষের পরেও টাকার বিনিময়ে নিয়োগ হয়েছে।

গত ২০ জুন সিবিআইয়ের তরফে বেশ কিছু নথি আদালতে পেশ করা হয়েছিল। সেখানে বলা হয়েছিল তথ্য দেখে স্পষ্ট মেয়াদ শেষের পরেও নিয়োগ হয়েছে। তাই সত্যতা যাচাই করতে সমস্ত তথ্য দিল্লির ফরেনসিক ল্যাবে পাঠানো হয়েছিল। ফরেনসিক ল্যাবের তরফে যে রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে, তাতে স্পষ্ট করে কিছু জানানো হয়নি।

এর আগে প্রাথমিক শিক্ষক পদে নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় প্রাক্তন পর্ষদের সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যকে অপসারণের নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। গোটা দুর্নীতি প্রক্রিয়ায় তিনি মাস্টারমাইন্ড। একথা বারবার উঠে আসছিল তদন্তকারী সংস্থাদের বিভিন্ন তথ্যে৷ তাই তদন্তের স্বার্থে একাধিকবার মানিককে তলব করেছে ইডি ও সিবিআই৷ এমনকি লুক আউট নোটিশ জারি হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। আগামী দিনে মানিকের বিরুদ্ধে কোনও কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে কি না, প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।