চাকরি চেয়ে লাঠিপেটা উপহার, বিজেপি শাসিত ত্রিপুরায় রক্তাক্ত শিক্ষক-শিক্ষিকারা

দেশের একমাত্র রাজ্য ত্রিপুরা যেখানে কর্মহীন শিক্ষক শিক্ষিকারা আত্মঘাতী হয়েছেন সর্বাধিক।

108

বিজেপি (BJP) জোট সরকারের আমলে ত্রিপুরায় (Tripura) ঘরে ঘরে চাকরির প্রতিশ্রুতি একেবারে ভুয়ো বলেই অভিযোগ। তবে সরকারের দাবি চাকরি দেওয়া চলছে। আর প্রধান বিরোধী দল (CPIM) সিপিআইএমের কটাক্ষ লাঠিপেটা হলো চাকরির নমুনা! সোমবার চাকরি চেয়ে আগরতলায় (Agartala) শিক্ষক শিক্ষিকারা খেলেন পুলিশের লাঠির বাড়ি। জখম বহু।

পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী চাকরিচ্যুত ‘১০৩২৩ সংগঠন’ আগরতলায় বিধানসভায় ভবন অভিযান করে। হাজার হাজার শিক্ষক সেই মিছিলে অংশ নেন। সার্কিট হাউসের কাছে মিছিল আটকে দেয় পুলিশ। ব্যারিকেড ভাঙতে যান শিক্ষক শিক্ষিকারা। এর পরেই পুলিশ লাঠি চালায়। লাঠির আঘাতে রক্তাক্ত শিক্ষকরা রাস্তায় পড়ে থাকেন।

tripura1

শিক্ষক শিক্ষিকাদের উপর লাঠিচার্জের জেরে ত্রিপুরা সরগরম ফের। এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছে। চাকরি ফেরত চেয়ে বারবার মুখ্যমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীর দফতর, সরকারি বাসভবন ঘেরাও হয়েছে।

বিজেপি শাসিত ত্রিপুরায় শিক্ষক শিক্ষিকাদের চাকরিতে পুনর্বহালের জন্য লাগাতার আন্দোলন চলছে। শতাধিক শিক্ষক শিক্ষিকা হয় আত্মঘাতী অথবা টাকার অভাবে পর্যাপ্ত চিকিৎসা না করাতে পেরে মারা গেছেন।

ত্রিপুরায় গত বিধানসভা ভোটের আগে পূর্বতন বামফ্রন্ট সরকারের আমলে নিয়োগপ্রাপ্ত ১০৩২৩ জন শিক্ষক শিক্ষিকার চাকরি দানে ত্রুটির অভিযোগ ওঠে। আদালত থেকে চাকরিচ্যুত করার নির্দেশ আসে। বাম সরকার বিকল্প কর্মসংস্থানের উদ্যোগ নেয়। এর মাঝে হয় বিধানসভা ভোট। ক্ষমতায় আসে বিজেপি জোট। তবে বিকল্প কর্মসংস্থান বা চাকরিতে পুনর্বহাল কোনওটাই হয়নি।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)