18 C
Kolkata
Sunday, February 5, 2023

Modi Politics: বিলুপ্ত বঙ্গ বামফ্রন্টকে ছুঁলেন মোদী, অধরা চামলিং-জ্যোতি-মানিকের নজির

- Advertisement -

প্রসেনজিৎ চৌধুরী: দেশে দীর্ঘকালীন মু়খ্যমন্ত্রী পদাধিকারীদের তালিকায় শীর্ষ তিনটি নামের বহু নিচে (Narendra Modi) নরেন্দ্র মোদী। তিনি গুজরাটের (Gujarat) মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন ১২ বছর ২২৭ দিন। তবে তাঁর নেতৃত্বে গুজরাটেই বিজেপি (BJP) সপ্তমবার সরকার গড়ল। সেই হিসেবে মোদী ছুঁয়ে ফেললেন দেশে সর্বাধিক সময় রাজ্য সরকারে থাকা পশ্চিমবঙ্গের (West Bengal) পূর্বতন বামফ্রন্ট (Left Front Government) সরকারকে। বঙ্গভূমিতে টানা অষ্টম বামফ্রন্ট সরকার তৈরি হয়নি। বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে সেই সপ্তম বামফ্রন্ট সরকার পরাজিত হয় তৃণমূল কংগ্রেসের (TMC) কাছে। এখন বঙ্গ বিধানসভাতেই বিলুপ্তপ্রায় প্রাগৈতিহাসিক প্রাণীর মতো বামফ্রন্টের পরিচিতি।

- Advertisement -

গুজরাট দখলে রেখে পশ্চিমবঙ্গের টানা সাতবারের বামফ্রন্ট সরকারের জয়কে ছুঁয়ে ফেলেছেন মোদী। তবে ক্ষমতায় থাকার নিরিখে বাংলার পূর্বতন বাম সরকারের নজির ভাঙতে বিজেপিকে আরও পাঁচ বছর অপেক্ষা করতে হবে। বিজেপি মনে করছে সেই নজির তারা গড়বেই। বিশ্লেষকরা বলছেন বিজেপির অতিশয়োক্তি এক্ষেত্রে ধর্তব্য নয়। কারণ রাজনৈতিক হাওয়া কখন মোড় নেয় তা নিশ্চিত করা যায়না এত আগে থেকে। ব্যাখ্যায় বারবার উঠে আসছে বিপুল শক্তি নিয়ে ২০০৬ সালে পশ্চিমবঙ্গে সপ্তম বামফ্রন্ট সরকার তৈরি হলেও ঠিক পরের ভোটে ২০১১ সালে ক্ষমতাচ্যুত হয়েছে সেই শক্তি। তারপর পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় শূন্য হয়ে গেছে।

- Advertisement -

১৯৯৫ সালে কেশুভাই প্যাটেলের নেতৃত্বে গুজরাটে ক্ষমতায় এসেছিল বিজেপি। এরপর টানা সাতবার গুজরাট দখলে রাখল বিজেপি। ১৯৭৭ পশ্চিমবঙ্গে জ্যোতি বসুর নেতৃত্বে ক্ষমতায় এসেছিল বামফ্রন্ট সরকার। তারপর পরপর ৭ বার জয় করে ৩৪ বছর সরকার চালিয়েছিল সিপিআইএম।
জ্যোতি বসু টানা ২৩ বছর ১৩৭ দিন মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন। তাঁর এই নজিরের মাঝে আরও একটি নীরব নজির তৈরি করে গেছেন সিকিমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী পবন কুমার চামলিং। তাঁর দল সিকিম ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (SDF) ২৪ বছর একটানা সরকার চালিয়েছিল সিকিমে। আর চামলিং মুখ্যমন্ত্রী পদে ছিলেন ২৪ বছর ১৬৫ দিন। তিনি ভেঙে দিয়েছেন জ্যোতি বসুর নজির।

গুজরাটে সপ্তম বিজেপি সরকার গড়লেও দীর্ঘস্থায়ী মুখ্যমন্ত্রীদের তালিকায় বহু নিচে বিজেপি। এই তালিকায়, চামলিং, জ্যোতি বসুর পরেই আছেন ওড়িশার বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়ক ও অরুণাচল প্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী গেগং আপাং।

টানা ক্ষমতায় থাকার প্রথম চার রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের পর আসছে মিজোরাম ও ত্রিপুরার প্রাক্তন দুই মুখ্যমন্ত্রী লাল থানওয়ালা ও মানিক সরকারের নাম। এদের মধ্যে ত্রিপুরায় গত বিধানসভা ভোটে বিজেপির কাছে পরাজিত হয় সে রাজ্যের দু দশকের বেশি চলা বামফ্রন্ট সরকার। টানা ১৯ বছর ৩৬৩ দিন মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন মানিক সরকার। ত্রিপুরায় আসন্ন বিধানসভা ভোটে ফের বিজেপি ও সিপিআইএম মুখোমুখি। এ রাজ্যে বিজেপির সরকার ধরে রাখা নিয়ে দলেরই অন্দরে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা।