HomeEditorialWeather update: বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি চলবে দক্ষিণে, মেঘ ভাঙা বৃষ্টিতে বানভাসি উত্তর

Weather update: বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি চলবে দক্ষিণে, মেঘ ভাঙা বৃষ্টিতে বানভাসি উত্তর

Published on

- Advertisement -

নিউজ ডেস্ক: বৃষ্টি চলছেই। আজ দক্ষিণবঙ্গে দিনভর বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। সকাল থেকেই বিভিন্ন জেলা থেকে বৃষ্টির খবর মিলছে। তা দিনভর চলবে বলেই জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

এদিকে হাওয়া অফিস জানাচ্ছে নিম্নচাপ সরে গিয়েছে বিহারের দিকে, আজ থেকে দক্ষিণবঙ্গে কমবে বৃষ্টি। উত্তরবঙ্গে আগামী ৪৮ ঘণ্টা ভারী বৃষ্টি, পূর্বাভাস আবহাওয়া দফতরের। কিন্তু তার মধ্যেই দক্ষিনবঙ্গে বৃষ্টি হচ্ছে। এর কারণ কী? হাওয়া অফিস জানাচ্ছে দক্ষিণ থেকে উত্তরের দিকে যাচ্ছে নিম্নচাপ। তারফলে প্রচুর জ্বলিয় বাষ্প ঢুকছে দক্ষিণবঙ্গে। ফলে বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি আজও হবে।

Advertisements
teesta
মেঘ ভাঙা বৃষ্টিতে ভয়ঙ্করী তিস্তা

অপরদিকে উত্তরবঙ্গের পরিস্থিতিও খারাপ। বিপুল বৃষ্টির ঘাটতিতে চলা উত্তর এবার কার্যত বানভাসি। সোমবার থেকে টানা ভারী বৃষ্টিতে এমনই করুন অবস্থা। বহু স্থানে নেমেছে ধস। তিস্তার জল খাদ থেকে উঠে এসে রাস্তা দিয়ে বইছে যে চিত্র দেখা যায় না বলেই জানা গিয়েছে। শেষ লক্ষীপুজোর দিনে এমন বানভাসি পরিস্থিতির উত্তরবঙ্গে দেখা দিয়েছিল ১৯৬৮ সালে। তারপরে এই ২০২১। সময় এগোলে পরিস্হিতি আরও ভয়ঙ্কর হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

মঙ্গলবার আচমকা মেঘভাঙা বৃষ্টি নামে গরুবাথানে।উত্তরবঙ্গে বৃষ্টি বাড়বে বলে আগেই পূর্বাভাস দিয়েছিল আলিপুর আবহাওয়া দফতর। মঙ্গলবার বিকেল চারটে নাগাদ আচমকা মেঘভাঙা বৃষ্টি শুরু হয় জলপাইগুড়ি লাগোয়া কালিম্পঙের গরুবাথানে। বৃষ্টির তেজে তিস্তার জলস্তর বাড়তে শুরু করে। পরিস্থিতি এমন হয় যে লকগেটের উপর দিয়ে বইতে থাকে জলস্রোত।

সেচ দফতরের আধিকারিকদের সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। দার্জিলিং ছা়ডাও জলপাইগুড়ি এবং আলিপুরদুয়ারে প্রবল বৃষ্টি হচ্ছে। উত্তর সিকিমে বিকেলের দিকে তুষারপাতের খবরও মিলেছে। যার জেরে কমেছে তাপমাত্রাও। প্রবল বৃষ্টির দাপটে ত্রিবেণীর রাস্তা দিয়েও বইছে তিস্তার জল, ১০ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর দিয়ে বইছে তিস্তা।

কালিম্পং জেলার বেশ কয়েকটি এলাকায় ধস নেমেছে। শহরের ৪, ১৫, ১৮ এবং ২১ নম্বর ওয়ার্ডের কয়েকটি বাড়ি, গার্ডওয়াল এবং ফুলবাথ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ওই ধসের জেরে। উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে পুরসভা এবং বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। কালিম্পঙের আলগারা এবং লাভার মাঝে তিন মাইল এলাকায় গাছ ভেঙে পড়ে একটি গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

প্রবল বৃষ্টির জেরে ১০ নম্বর জাতীয় সড়কে যান চলাচল এক সময়ে বন্ধ হয়ে যায়। দার্জিলিঙেও কয়েকটি জায়গায় ধসের খবর মিলেছে। গোকে থেকে সিঙ্গল বাজার যাওয়ার রাস্তায় ধস নেমেছে। তার জেরে সুখিয়াপোখরি থেকে মানেভঞ্জন যাওয়ার রাস্তায় যান চলাচল বিপর্যস্ত।একই চিত্র কোচবিহারেরও।কোচবিহারে টানা গরম চলছিল। মঙ্গলবার সকাল থেকে বৃষ্টি নামায় সেই গুমোট আবহাওয়া কেটেছে।

Advertisements

সর্বশেষ সংবাদ শিরোনাম

এই সংক্রান্ত আরও সংবাদ