Iran Hijab Row: হিজাব পোড়ানো বিক্ষোভে জ্বলছে ইরান, আমিনির মৃত্যু তদন্তে গতি নেই

হিজাব পুড়িয়ে দিতে বিশ্ব জুড়ে আবেদন করেন বাংলাদেশ থেকে নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন।

49

হিজাব নয় আর এই প্রতিবাদে জ্বলছে (Iran Hijab Row) ইরান। দেশটির সর্বত্র চলছে হিজাব পোড়ানোর পালা। সরকারের হিজাব নীতির বিরুদ্ধে চরম আওয়াজে কাঁপছে (Iran) ইরান। সেই প্রতিবাদের আরও এক মুহূর্ত দেখে কেঁপে গেল দুনিয়া। অর্ধনগ্ন হয়ে রাজপথে সামিল এক ইরানি যুবতী। তাঁর ছবি বিশ্বজুড়ে ভাইরাল। ইরানের রক্ষণশীল সমাজ হতবাক। বিক্ষোভ মিছিলে বারবার গরম হয়েছে ইরান। মহিলারা বিভিন্ন ইস্যুতে প্রতিবাদ করেছেন। কিন্তু এমন অর্ধনগ্ন প্রতিবাদ আর হয়নি।

সম্প্রতি ইরানি যুবতী মাহশা আমিনিকে পুলিশ হিজাব না পরায় পিটিয়ে মেরে ফেলে বলে অভিযোগ। আমিনিকে প্রকাশ্যে হিজাব বিহীন অবস্থায় দেখা গিয়েছিল। ইরানের যে অংশে কুর্দিস্তানের কিছু এলাকা পড়ে সেখান থেকে তেহরান আসার পথে পুলিশ গ্রেফতার করেছিল আমিনিকে। এরপর রক্তাক্ত জখম আমিরির দেহ হাসপাতালে আছে এমন ছবিতে উত্তাল হয়েছে ইরান। অভিযোগ তাকে পিটিয়ে মেরেছে পুলিশ। তবে পুলিশ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

Iran

 

আমিনির পরিবারের দাবি, দেশের সরকার পুরো ঘটনা চাপা দিতে মরিয়া। আমিনির পিতার ক্ষোভ সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে ছড়ায়। তাতে আরও উত্তপ্ত হয়েছে ইরান।

iran_hijab
বিবিসির খবর, দেশটির সর্বত্র চলছে হিজাব বিরোধী বিক্ষোভ। রাজধানী তেহরানে প্রবল গণ আন্দোলন চলছে।

iran_hijab

বিবিসি আরও জানাচ্ছে, ইরানি রাজতন্ত্র ‘শাহ’ শাসনের অবসান হয়েছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিরোধী গণ আন্দোলনে। আশির দশকের সেই আন্দোলন ইসলামি বিপ্লব বলে পরিচিত। এর পর যে গণতান্ত্রিক ইরান তৈরি হয় তাতে মহিলাদের হিজাব পরা বাধ্যতামূলক। সম্প্রতি ইরান সরকার হিজাব পরার নিয়মে আরও কড়াকড়ি করেছে। আমিনির মৃত্যুর পর হিজাব বিহীন মহিলা বিক্ষোভ আরও তুঙ্গে।