Nirmalendu Goon: শেখ হাসিনার বন্ধু কবি নির্মলেন্দু গুণ সরকারকেই দিলেন হুমকি

কবি নির্মলেন্দু গুণের বিস্ফোরক দাবি। বাংলাদেশ সহ বিশ্বজনীন বাঙালিদের মধ্যে তীব্র আলোড়ন।

51

কবি দিচ্ছেন সরকারকে হুমকি! চমকে গেছে বাঙালি পাঠককুল। বারবার বিতর্কিত অবস্থান নেওয়া বাংলাদেশের (Bangladesh) কবি তথা বিশ্বজনীন বাঙালি পাঠকদের কাছে বিশেষ পরিচিত নির্মলেন্দু গুণের (Nirmalendu Goon) হুঁশিয়ারি তিনি রাষ্ট্রীয় সম্মাননা বিক্রি করে দেবেন। বাংলাদেশের সরকারের দেওয়া সর্বচ্চো অসামরিক রাষ্ট্রীয় সম্মাননা ‘স্বাধীনতা পুরষ্কার’ বিক্রি করে দেবেন বলেই ফেসবুক পোস্টে জানান নির্মেলন্দু গুণ।

তাৎপর্যপূর্ণ, কবি নির্মলেন্দু গুণ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বন্ধু। তিনিই আবার হাসিনার নেতৃত্বে চলা আওয়ামী লীগ সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন।

কবির রাগ কেন? জানা যাচ্ছে, বাংলাদেশে ঘরে ঘরে যে গ্যাস সরবরাহ করা হয় তার সংযোগ নিতে দরখাস্ত করার পরেও নির্মলেন্দু গুণ সেই সংযোগ পাননি। কবি লিখেছেন, ‘স্বাধীনতা পুরস্কার ও একুশে পদকপ্রাপ্ত দেশের বিশিষ্ট গুণীজনদের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হোক। রেল এবং বিমানের টিকিটও তাঁদের জন্য সংরক্ষিত থাকলে ভালো হয়। রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পুরস্কার প্রাপকদের এরকম সামান্য বাড়তি সুবিধা তো দেয়া যেতেই পারে। আপনারা কী বলেন?’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘খোলা বাজার থেকে চড়া মূল্যে আমাকে তরল গ্যাস কিনতে হয়। এই ক্ষতি পোষাতে আমি পুরস্কারের সঙ্গে পাওয়া আমার স্বর্ণপদক দুটি বেচে দেয়ার কথা ভাবছি। সরকারকে এক মাস সময় দেয়া হলো।’

নির্মলেন্দু গুণ বাংলাদেশের অন্যতম অসামরিক পুরষ্কার ‘একুশে পদক’ স্বর্ণ পদক বিক্রি করে দেবেন বলে হুঁশিয়ারি দেন। কবির অভিযোগ চূড়ান্ত গাফিলতি চলছে।

জানা যাচ্ছে, বাংলাদেশ সরকার গ্যাস সংকটের জন্য  ২০০৯ সালে নতুন করে আবাসিক গ্যাস সংযোগ দেওয়া বন্ধ করেছে।২০১৩ সালের শেষের দিকে জাতীয় নির্বাচনের আগে আবাসিকের সংযোগ চালু করা হয়েছিল। অভিযোগ, নির্বাচনের পর জ্বালানি বিভাগ থেকে অলিখিতভাবে বিতরণ কোম্পানিকে নতুন আবেদন গ্রহণ করতে নিষেধ করা হয়েছে। ২০১৯ সালে ফের আবাসিক সংযোগ স্থগিত রাখার আদেশ জারি করা হয়।

নির্মলেন্দু গুণ জানান, শুধু নিজের জন্য তিনি এই স্ট্যাটাস দেননি। রাষ্ট্রীয় পদকপ্রাপ্ত সকলে যেন সুবিধা ভোগ করে সেটিই তাঁর চাওয়া। 

কবি জানান, তিনি একটি বাড়ি তৈরি করেছেন। সেই বাড়ির জন্য গ্যাস সংযোগ চেয়ে আবেদন করেন। বাংলাদেশের বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছিলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমতি লাগবে। তবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এ বিষয়ে কথা হয়নি বলে জানান নির্মলেন্দু গুণ। কবি আরও জানান, বাড়িটি তিনি কয়েকজন গরিব ব্যক্তিকে দান করেছেন। তিনি চান তাঁর অবর্তমানে যেন বাসিন্দারা গ্যাস-বিদ্যুৎ সংকটে না ভোগে।  

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)