Malda: মালদায় শ্রমিকের ঘরে কালো টাকার পাহাড়

36

চমকে গেলেন STF তদন্তকারীরা। সূত্র মারফত যা জানা গেছিল তার থেকেও বেশি মিলেছে (Black Money) কালো টাকা। লক্ষ লক্ষ টাকার বান্ডিল এক ভিন রাজ্যের শ্রমিকের ঘরে। মালদার (Malda) কালিয়াচকের গঙ্গানারায়ণপুরে তীব্র চাঞ্চল্য।

কালিয়াচক জুড়ে বেআইনি লেনদেন হয়। বারবার পুলিশ ও STF অভিযান সংঘঠিত হয়েছে। শনিবার তেমনই এক অভিযানে মিলল প্রায় ৩৮ লক্ষ টাকা। এক সাধরণ শ্রমিকের ঘরে এত টাকা দেখে চমকে গেছে এসটিএফ। মনে করা হচ্ছে এই টাকা কোনও মাদক পাচার চক্রের।

  • মালদার লাগোয়া বাংলাদেশের রাজশাহী
  • সীমান্তের ওপারে চাঁপাইনবাবগঞ্জ চোরাচালাানের ঘাঁটি
  • সোনা, মাদক, আগ্নেয়াস্ত্র, মাদক পাচার হয় কালিয়াচক ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের মধ্যে

কালিয়াচক জুড়ে ফের চাঞ্চল্য। তদন্তে উঠে এসেছে অন্য রাজ্যের বাসিন্দা এক শ্রমিকের ঘরে মিলেছে এই কালো টাকার পাহাড়। এসটিএফ সূত্রে খবর, এই বিপুল পরিমাণে অর্থের সাথে সরাসরি যোগ রয়েছে মাদক কারবারীদের।

তদন্ত সূত্র ধরে উঠে আসছে কালিয়াচকের মাদক কারবারি রয়েল শেখের নাম। গত ফেব্রুয়ারি মাসে তাকে কালিয়াচক থানার মোজামপুর থেকে হেরোইন পাচারের অভিযোগে গ্রেফতার করেছে সিআইডি।

এসটিএফ মনে করছে, মাদক কারবারের টাকা বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে রাখে পাচারকারীরা। তেমনইভাবে এই শ্রমিকের ঘরে গোপনে রাখা ছিল লক্ষ লক্ষ টাকা। এই বিপুল পরিমাণ অর্থ আসলে রয়েল শেখের। তার স্ত্রী ফতেমা বিবিকে মাদক পাচার মামলায় মূল অভিযুক্ত করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

বাংলাদেশ সীমান্তের জেলা মলদা। সীমান্তের ওপারে বাংলাদেশের রাজশাহী। সীমান্তের চোরাচালানের ক্ষেত্রে মালদা বিশেষ গুরুত্ব পায় চোরাকারবারিদের কাছে। বেআইনি আগ্নেয়াস্ত্র, সোনা, মাদক ও গোরু পাচারের অন্যতম এলাকা মালদার কালিয়াচক আর সীমান্তের ওপারে বাংলাদেশের চাঁপাইনবাবগঞ্জ।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)