Kanti Ganguly: ঘুম নেই চোখে, সিত্রাং ঝড়ের রাতে বাঁধ পাহারায় সিপিআইএমের কান্তিবাবু

কান্তি গাঙ্গুলী দিচ্ছেন বাঁধ পাহারা। সিত্রাংয়ের গতিবিধি দেখে নামবেন সকাল থেকে।

99

সুন্দরবনের (Sundarban) উপর দিয়ে বয়ে যাবে সিত্রাং (Sitrang Cyclone) ঘূর্ণিঝড়। আবহাওয়া বিভাগের পূর্বাভাস পাওয়ার পর থেকে ফের উপকূল এলাকায় নেমে পড়েন প্রাক্তন মন্ত্রী ও সিপিআইএম (CPIM) নেতা কান্তি গাঙ্গুলী (Kanti Ganguly)। নির্ঘুমে রাত কাটবে তাঁর। সুন্দরবনের বিভিন্ন লোকালয়ের সর্বশেষ খবর নিতে রাতেই বেরিয়ে পড়েছেন কান্তিবাবু।

সিত্রাং ঘূর্ণি সোমবার মধ্য রাতের পর থেকে সর্বোচ্চ গতিবেগ নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের উপকূল পেরিয়ে বাংলাদেশে ঢুকবে। সিত্রাং প্রভাবে পশ্চিমবঙ্গের উপকূলীয় এলারার দক্ষিণ ২৪ পরগনা ও পূর্ব মেদিনীপুরের বিস্তির্ণ এলাকায় সাগরের পাড় ভেঙে নোনা জল ঢুকতে শুরু করেছে। আবহাওয়া বিভাগের সতর্কতা আমাবস্যা ও ঘূর্ণির জোড়া ধাক্কায় জলোচ্ছাস হবে।

জানা যাচ্ছে সিপিআইএম নেতা কান্তি গাঙ্গুলী রাতেই জলোচ্ছ্বাসের খবর পান। তিনি মৈপীঠের সংলগ্ন বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখেন। সঙ্গে ছিলেন দলীয় কর্মীরা। কান্তিবাবু জানান, পরিস্থিতি বুঝে পরবর্তী পদক্ষেপ নেব।

আবহাওয়া বিভাগ জানিয়েছে, ঝড় বাংলাদেশে যাচ্ছে। এদিকের উপকূলে ক্ষয় ক্ষতির পরিমাণ তেমন হবে না।

আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাঞ্চলীয় উপ-মহানির্দেশক সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, সিত্রাং প্রভাবে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বৃষ্টি হচ্ছে। বইছে ঝোড়ো হাওয়া। ঝড় এবং বৃষ্টির দাপট বেশি বঙ্গোপসাগরের উপকূলবর্তী এলাকায় পূর্ব মেদিনীপুর, দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলায়।

হাওয়া অফিস জানিয়েছে, উপকূল এলাকায় ভারী বৃষ্টি ও কলকাতায় বৃষ্টি হবে হাল্কা থেকে মাঝারি। ঝড়ের গতিবেগও ঘণ্টায় ৪০ থেকে থেকে ৫০ কিলোমিটারের বেশি হবে না। ঘূর্ণিঝড়ের সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়বে সুন্দরবন এলাকায়।

বিগত বাম আমলে সুন্দরবন উন্নয়ন মন্ত্রী ছিলেন কান্তি গাঙ্গুলী।  ২০১১ সালে বাম জমানার পতনের পর থেকে কান্তি গাঙ্গুলী রায়দিঘী কেন্দ্র থেকে পরপর তিনবার লড়াই করে হেরেছেন। ভোটে হারলেও তাঁর ব্যক্তিগত জনপ্রিয়তা তুঙ্গে। করোনা সংকটে তাঁর তৈরি হাসপাতাল চমকে দিয়েছিল রাজ্যবাসীকে। যখনই সামুদ্রিক ঝড় আসে কান্তি গাঙ্গুলীকে দেখা যায় উদ্ধার ও ত্রাণ বণ্টনে। সুন্দরবন এলাকার চালু কথা ঝড়ের আগে কান্তি আসে।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)