Birbhum: কীভাবে বিপুল সম্পত্তির মালিক কেষ্টর কন্যা? তদন্তে নামছে ইডি

অনুব্রতকে দিল্লি নিয়ে গিয়ে জেরার সম্ভাবনা। বীরভূম জেলা তৃণমূলে হতাশার পারদ চড়ছে।

44

গোরু পাচার মামলায় গত অগাস্ট মাস থেকেই ইডি হেফাজতে বীরভূম (Birbhum) জেলা তৃণমূল কংগ্রেস (TMC) সভাপতি (Anubrata Mondal) অনুব্রত মণ্ডল। গত ১৬ তারিখ অনুব্রতর কন্যার সম্পত্তির হিসেব জানতেই বোলপুরের নীচুপট্টির বাড়িতে হানা দিয়েছিল সিবিআই। কিন্তু সিবিআইয়ের প্রশ্নে অনুব্রত কন্যা যে সমস্ত উত্তর দিয়েছে তাতে অসন্তুষ্ট কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। তবুও বিপুল অঙ্কের সম্পত্তি কীভাবে হল সুকন্যার তা খতিয়ে দেখতে এবার তদন্তে নামছে (ED) ইডি।

সিবিআই সূত্রে খবর, গোরু পাচার মামলায় অনুব্রত মণ্ডলের কাছ থেকে বিশেষ সম্পত্তির হদিশ পায়নি সিবিআই৷ কিন্তু নজরে রয়েছে সুকন্যা ও অনুব্রত ঘনিষ্ঠ বিদ্যুৎবরণ গায়েনের সম্পত্তি৷ একজন পুরসভার কর্মী ও একজন শিক্ষিকা কীভাবে ঋণ না নিয়ে কোটি টাকার মালিক হল তা জানতেই এবার তৎপর হয়েছে ইডি।

সুকন্যা মণ্ডল এবং অনুব্রত মণ্ডলে ব্যাঙ্কের ফিক্সড ডিপোজিটে কোটি কোটি টাকা, বিভিন্ন বন্ড ইতিমধ্যেই হাতে পেয়েছে সিবিআই। অনুব্রত মণ্ডল আর্থিক দুর্নীতির অংশীদার করেছেন নিজের মেয়েকে একথা বারবার তুলে ধরতে চেয়েছে সিবিআই৷ গত ১৬ তারিখ অনুব্রত কন্যা সুকন্যাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ইতিবাচক উত্তর পায়নি সিবিআই৷ বরং হিসেবরক্ষক মনীশ কোঠারি সব জানে বলে দাবি করেছে সুকন্যা৷

সূত্রের খবর, এবার অনুব্রত মণ্ডলকে দিল্লিতে নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেন তাঁরা। সেখানে বিশেষ নজরে থাকবে অনুব্রত ও তাঁর ঘনিষ্ঠদের বিরাট সম্পত্তি৷

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)