Romelu Lukaku: সহজ জয় সিটির, চেলসিকে ফাইনালে তুললেন লুকাকু

77

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের খেতাব ধরে রাখার মিশনে নিজেদের পায়ের তলার মাটি আরও শক্ত করল ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ব্রেন্টফোর্ডকে ২-০ গোলে হারিয়ে লিগ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে থাকা লিভারপুলের থেকে ১২ পয়েন্টে এগিয়ে গেল পেপ গুয়ার্দিওলার দল।

ম্যাচে বল দখল কিংবা গোল লক্ষ্য করে শট, সব বিভাগেই এগিয়ে থাকলেও গোলের দেখা পাচ্ছিল না সিটি। একের পর এক সুযোগ নষ্ট করছিলেন কেভিন ডি ব্রুইন, ফিল ফোডেন, এমেরিক লাপোর্তেরা। অবশেষে প্রথমার্ধের ৪০ মিনিটে এগিয়ে যায় আয়োজকরা। ডি-বক্সে রহিম স্টার্লিং ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। স্পট কিক থেকে প্রথম গোলটি তুলে নেন রিয়াদ মাহরেজ।

৬৯ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে সিটি। তবে এই গোলে ছিল ভাগ্যের ছোঁয়া। প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক রায়া সতীর্থের ব্যাকপাস ভুল করে তুলে দেন স্টার্লিংয়ের পায়ে। সঙ্গে সঙ্গেই গোল লক্ষ্য করে শট নেন ইংলিশ ফরোয়ার্ড। সেই শট রায়া ঝাঁপিয়ে পড়ে আটকালেও ফিরতি বলে পা ছুঁইয়ে জালে জড়িয়ে দেন ডি ব্রুইন। এই জয়ে ২৪ ম্যাচে ম্যান সিটির পয়েন্ট ৬০। দ্বিতীয় স্থানে থাকা লিভারপুল দুই ম্যাচ কম খেলে ৪৮ পয়েন্ট ঝুলিতে পুরেছে।

এদিকে, কষ্টার্জিত জয়ে ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠল চেলসি। রোমেলু লুকাকুর (Romelu Lukaku) একমাত্র গোলে সৌদি আরবের ক্লাব আল হিলালকে হারিয়ে বাজিমাত করল অল ব্লুজ। আবুধাবির মহম্মদ বিন জায়েদ স্টেডিয়ামে সেমিফাইনালে এশিয়ান চ্যাম্পিয়নদের ১-০ গোলে হারায় ইউরোপ সেরারা। একই মাঠে শনিবারের ফাইনালে চেলসির প্রতিপক্ষ পালমেইরাস।

আল হিলাল কিন্তু চোখে চোখ রেখে লড়াই চালিয়ে গিয়েছে চেলসির বিরুদ্ধে। ম্যাচে ৫৪ শতাংশ বল দখলে রেখে গোলমুখে ১৫টি শট নেয় চেলসি, যার ৫টি ছিল লক্ষ্যে। আল হিলালও খুব পিছিয়ে ছিল না। ১২টি শট নেয় তারা, যার মধ্যে ৩টি লক্ষ্যে। করোনা আক্রান্ত হওয়ায় এদিন চেলসির ডাগআউটে ছিলেন না প্রধান কোচ টমাস টুখেল।

ম্যাচের ৩২ মিনিটের মাথায় লুকাকুর গোলে এগিয়ে যায় চেলসি। বাঁ দিক থেকে কাই হার্ভাটজের ক্রস হেডে ক্লিয়ার করতে পারেননি আল হিলালের ডিফেন্ডার ইয়াসির আল শাহরানি। সেই বল পেয়ে গেলে জালে জড়াতে ভুল করেননি বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড। লুকাকুর এই গোলেই ফাইনালে পৌঁছয় চেলসি।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)