সম্প্রচারে বিঘ্ন!! দর্শকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিল জিও সিনেমা কর্তৃপক্ষ

127
Jio cinema authorities apologized to the audience

দীর্ঘ চার বছরের অপেক্ষা শেষ। রবিবার শুরু হয়ে গিয়েছে ফুটবল বিশ্বকাপ। বহু বিতর্ককে সঙ্গী করেই বিশ্বকাপের ঢাকে কাঠি পড়েছে। যা বজায় থাকল খেলা শুরুর পরও। এবার বিতর্ক ঘনাল জিও সিনেমায় খেলার সম্প্রচার নিয়ে। ইকুয়েডর বনাম কাতারের ম্যাচে থেকে থেকেই আটকে গেল ছবি। যার ফলে ক্ষুব্ধ ভারতের ফুটবলপ্রেমীরা।

পরে এই সমস্যার জন্য ক্ষমা চেয়ে নেয় জিও।বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে আল বায়াত স্টেডিয়ামে মাঠে ছিলেন হাজার ষাটেক মানুষ। কিন্তু টিভি ও মোবাইলের মাধ্যমে সারা পৃথিবীর কোটি কোটি দর্শকের চোখ ছিল এই ম্যাচের দিকেই। ভারতে এই খেলা বিনামূল্যে দেখতে বহু মানুষেরই ভরসা জিও সিনেমা অ্যাপ ও ওয়েবসাইট। কিন্তু দেখা গেল খেলা চলতে চলতে থেকে থেকেই বাফারিং হচ্ছে। আটকে যাচ্ছে স্ট্রিমিং।

এরপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগরে দিতে থাকেন নেটিজেনরা। অনেকেই দাবি করেন, তাঁদের ইন্টারনেট সংযোগে কোনও সমস্যা নেই। তবুও খেলা দেখতে নাজেহাল হতে হচ্ছে।পরে জিও সিনেমার তরফে টুইটও করা হয়। সেখানে জানানো হয়েছে, ‘প্রিয় জিও সিনেমা ফ্যানরা, আমরা একটানা কাজ করে চলেছি বিষয়টি নিয়ে, যাতে আপনাদের অভিজ্ঞতা ভাল হয়। দয়া করে অ্যাপটি আপডেট করে সাম্প্রতিকতম সংস্করণটির মাধ্যমে ফিফা বিশ্বকাপ ২০২২ উপভোগ করুন। অসুবিধার জন্য ক্ষমাপ্রার্থী।’ কিন্তু এরপরও বহু দর্শকের দাবি, আপডেট করেও সমস্যার হাত থেকে মুক্তি মেলেনি। থমকে গিয়েছে সম্প্রচার।

এদিকে বিশ্বকাপের উদ্বোধনকে কেন্দ্র করেও বিতর্ক দেখা দিয়েছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানকে ঘিরে উল্লাস ছিল প্রতিবারের মতোই। কিন্তু বর্ষীয়ান হলিউড তারকা মর্গ্যান ফ্রিম্যান পারফরম্যান্স করার সময় দেখা যায় বহু আসনই খালি। এই অনুষ্ঠান দেখায়নি বিবিসি। বরং সেই সময় কাতারে মানবাধিকার সংক্রান্ত যে অভিযোগ সেই সংক্রান্ত রিপোর্ট দেখানো হয়। আসলে কাতার দেশটিকে ঘিরে যে বিতর্ক, তা বিশ্বকাপেও প্রভাব ফেলবে বলেই মত ওয়াকিবহাল মহলের একাংশের। এই অবস্থায় সব বিতর্ককে সঙ্গী করেই শুরু হয়ে গেল বিশ্বকাপ।