চ্যারিস কিরিয়াকুকে নিয়ে ইস্টবেঙ্গল এফসির চাঞ্চল্যকর টুইট পোস্ট

46
Charalambos Kyriakou

ওড়িশা এফসির বিরুদ্ধে অপ্রত্যাশিত হারের পরে সাংবাদিক বৈঠকে এসে ইস্টবেঙ্গল এফসি কোচ স্টিফেন কনস্টাটাইন চ্যারিস কিরিয়াকুর (Charalambos Kyriakou) ইনজুরি ইস্যুতে জানিয়েছিলেন, ” আপাতত কিরিয়াকু হাসপাতালে রয়েছে। ভ্রু’র ওপর সেলাই করতে হয়েছে।”তবে সোমবার সন্ধ্যেতে সকলকে চমকে দিয়ে চ্যারিস কিরিয়াকু টিমের প্র‍্যাকট্রিস গ্রাউন্ডে এসে উপস্থিত হন।

শুধু প্র‍্যাকট্রিস গ্রাউন্ডে এসে উপস্থিতই হননি, কিরিয়াকু পুরো দমে অনুশীলনেও নেমে পড়েন।আর কিরিয়াকুর প্র‍্যাকট্রিসের ওই মুহুর্ত ইস্টবেঙ্গল এফসি নিজেদের অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেলে পোস্ট করতেই তা ভাইরাল হয়ে যায়।ওই টুইটের ক্যাপসনে লেখা হয়েছে,” ডেডিকেশন = #AmagoGladiator
#জয়ইস্টবেঙ্গল #আমাগোমশাল “

প্রসঙ্গত, ওড়িশা এফসির বিরুদ্ধে হারের পর ইস্টবেঙ্গল শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকার লাল হলুদ খেলোয়াড়দের টিমের প্রতি দায়বদ্ধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বলেন,”একটা দল প্রথমার্ধে দু’গোলের লিড নেওয়ার পর,দ্বিতীয়ার্ধে তিন মিনিটের মধ্যে দু’গোল খায়,আমার তো খেলোয়াড়দের ফিটনেস এবং মানসিকতা নিয়ে সন্দেহ জাগছে।” দেবব্রত সরকারের এই বার্তা অনেকটা ‘ভোকাল টনিকে’র মতো কাজ করেছে এমনটা মনে করছে ফুটবল মহল।

সঙ্গে দেবব্রত সরকার ওড়িশা এফসির বিরুদ্ধে টিমের খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সের ইস্যুতে এও বলেছিলেন, “প্লেয়াররা প্রফেশনাল, তারা টাকা নিচ্ছেন,তাদের খেলতে হবে এটাই স্বাভাবিক।” সরাসরি ইস্টবেঙ্গল ফুটবলারদের পেশাদারিত্ব নিয়ে কটাক্ষ ছুড়ে দেওয়ায় লাল হলুদ ফুটবলারেরাও যথেষ্ট ব্যাকফুটে। আগামী রবিবার ইস্টবেঙ্গল এফসির ম্যাচ জামশেদপুর এফসির বিরুদ্ধে। জামশেদপুরের মাটিতে রেড এন্ড গোল্ড বিগ্রেড ‘বাউন্সব্যাক’ করতে পারবে কিনা তা নিয়ে এখন জোর চর্চ্চাতে মশগুল ভক্তরা।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)