Ashique Kuruniyan: আশিক প্রসঙ্গে প্রসঙ্গে বিস্ফোরক মন্তব্য এই সবুজ-মেরুন তারকার

7706
গত ওডিশা ম্যাচের শুরুতে চোট পাওয়ার দরুন মাঠ থেকে উঠে যেতে হয়েছিল আশিক কুরুনিয়ানকে (Ashique Kuruniyan)। যা এক কথায় বড়বড় ছিল এটিকে মোহনবাগানের (ATK Mohun Bagan) ক্ষেত্রে।
Advertisements

গত ওডিশা ম্যাচের শুরুতে চোট পাওয়ার দরুন মাঠ থেকে উঠে যেতে হয়েছিল আশিক কুরুনিয়ানকে (Ashique Kuruniyan)। যা এক কথায় বড়বড় ছিল এটিকে মোহনবাগানের (ATK Mohun Bagan) ক্ষেত্রে। পাশাপাশি সেই ম্যাচে চোট পেয়ে জ্ঞান হারিয়েছিলেন দলের আরেক ভরসাযোগ্য তারকা তথা তিন কাঠির প্রহরী বিশাল কাইথ। যা রীতিমতো দমবন্ধকর পরিস্থিতি তৈরি করেছিল হুয়ান ফেরেন্দোর। ঘরের মাঠে ওডিশার বিপক্ষে বাগানের সহজ জয় উঠে এলেও কিছুতেই স্বস্তি পাচ্ছিলেন না তিনি।

তবে ম্যাচের শেষে বিশালের অবস্থার উন্নতির কথা ম্যানেজমেন্টের তরফে তাকে জানানো হতেই সাংবাদিকদের সামনে বেশ ফুরফুরে মেজাজে দেখা যায় এই স্প্যানিশ কোচ কে। তবে চিন্তা থেকে গিয়েছিল আশিককে নিয়ে। তার পায়ের চোট গুরুতর থাকায় দুটি সেমিফাইনালেই একেবারে অনিশ্চিত হয়ে পড়েন তিনি। এবার দলের এই ভরসাযোগ্য উইঙ্গারকে নিয়ে মুখ খুললেন সতীর্থ খেলোয়াড় লিস্টন কোলাসো।

Advertisements

সুদূর মল্লপুরম থেকে ফুটবল দুনিয়ায় যে যাত্রা শুরু করেছিলেন আশিক তা বর্তমানে তাকে এনে দিয়েছে দেশের অন্যতম জনপ্রিয় একটি ক্লাবে। এতদূর আসার রাস্তা যে একেবারে ই সহজ ছিল না তার পক্ষে সেকথা সবারই জানা। হাজারো প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও সুযোগ পেলেই নিজের জাত চিনিয়ে দিয়েছেন তিনি। মাত্র কুড়ি বছর বয়স থেকেই পেশাদার ফুটবলার হিসেবে তার আত্মপ্রকাশ। আইএসএলে প্রথমে এফসি পুনে সিটি থেকে শুরু করে এরপরে সুনীল ছেত্রীর বেঙ্গালুরু এফসি তে সাইন করেছিলেন এই তারকা। তারপরেই এই এটিকে মোহনবাগানে আসেন কেরলের এই ফুটবলার।

Advertisements

তবে শুধু উইঙ্গার হিসেবেই নয়। প্রয়োজন মতো ফুলব্যাক হিসেবে ও নিজের কাজ চালিয়ে যেতে পারেন আশিক। সেইজন্য ই হয়তো কোচের পছন্দের অন্যতম কারন তিনি। তাছাড়া বেঙ্গালুরুর মত দলে বহুদিন কাটানোর ফলে আক্রমণের ধার প্রবলভাবে বেড়ে গিয়েছিল আশিকের। এক কথায় একজন কমপ্লিট ফুটবলারের সমস্ত গুন লুকিয়ে রয়েছে বাগানের এই খেলোয়াড়ের মধ্যে। গত লেগের সেমিফাইনালে মাঠে নামতে পারেননি আশিক। যারফলে তার পরিবর্তে লিস্টন কোলাসো কে দিয়েই ম্যাচের শুরু করেছিল এটিকে মোহনবাগান।

তার প্রসঙ্গে লিস্টন বলেন, আশিক উইং ধরে দ্রুত গতিতে দৌড়তে পারে খুব সহজেই। সেই সাথে রয়েছে অন্যবদ ফিটনেস। এক কথায় আমাদের দলের প্রধান সম্পদ। তবে শুধু লিস্টন ই নন। আশিকের প্রসঙ্গে বাগানের হেডস্যার হুয়ান ফেরেন্দো বলেন, ও নিজের পজিশন খুব ভালোভাবে বুঝতে পারে। তাই প্রয়োজন মতো ধরে খেলার পাশাপাশি প্রেসিং ফুটবলের উপরে জোড় দিয়েও প্রতিপক্ষ কে চমকে দেওয়ার ক্ষমতা রাখে। তবে এখনো পর্যন্ত পায়ের চোট কমেনি আশিকের। যারফলে, আগামীকাল হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে সেমির দ্বিতীয় লেগে ও কার্যত অনিশ্চিত তিনি।

Advertisements