Thursday, February 2, 2023

ছুটে আসছে ‘শব্দবাণ’, সাহস থাকলে জব্দ করুন

- Advertisement -

বিশেষ প্রতিবেদন: সংবাদপত্রের ভিতরের পাতা একটা ছোট্ট কোণ। শব্দছকের এতটাই প্রাপ্তি একটা সংবাদপত্রে। কিন্তু একটা পুরো পত্রিকা শব্দছকের জন্য। ভাবেননি বিশেষ কেউ। ভেবেছেন শুভজ্যোতি রায়। এবং শুধু ভাবা নয় করে দেখানোর সাহস দেখিয়েছেন তিনি।

যাদবপুর সন্তোষপুরের মন, মাথা জুড়ে সারাক্ষণ ঘুরে বেড়ায় শব্দ এবং তা নিয়ে খেলা করতে করতে কেটেছে অনেকটা সময়। শুভজ্যোতির বলেছেন, তিনিই প্রথম শব্দছক নিয়ে কোনও কাগজ প্রকাশিত করলেন। দাবি খুব একটা ভুল নয়, কারণ এমন পাতার পাতার পর পাতা শব্দজব্দ , একটা পত্রিকা করার ভাবনা সাহস কেউ দেখায়নি।

tabloid only made for word puzzle

- Advertisement -

আপাতত তিনমাসে একবার প্রকাশিত হবে তাঁর শব্দবাণ নামক শব্দ ছকের ট্যাবলয়েড ৷ প্রথম সংস্করণ এল আজ ১৫ সেপ্টেম্বর ৷ দাম ১০ টাকা ৷ চারপাতার এই ট্যাবলয়েডে একাধিক বিষয়ের উপর শব্দছক থাকছে ৷ তাছাড়া পাঠকদের জন্য প্রতিযোগিতার ব্যবস্থাও থাকছে ৷ সেই প্রতিযোগীদের বিজয়ীদের জন্য থাকবে আকর্ষণীয় পুরস্কারও ৷

তাঁর কথায়, “অনেকেই আছেন যারা অবসরে খবরের কাগজে রাজনীতি মার প্যাঁচ বোঝার পাশাপাশি শব্দের মার প্যাঁচ বোঝার চেষ্টা করেন। নিজের মগজাস্ত্রে শাণ দিয়ে নেন ৷ অনেকের এটা নেশাই ৷ তাদের কথা ভেবেই এই উদ্যোগ, যা জনপ্রিয় হবে বলেই আমি আশা করি৷ ভবিষ্যতে এই পত্রিকাকে আরও বড় করে আনতে চাই ৷ সাপ্তাহিক , ঠিকভাবে এগোলে দৈনিক করার ভাবনা আছে।”

এমন একটি পত্রিকা তৈরির কথা কীভাবে ভাবনায় এল ? শুভজ্যোতির বলেন, ” স্কুল-জীবন থেকে শব্দ নিয়ে খেলা করার অভ্যাস ৷ ১৯৯৮ সাল থেকে শব্দছক তৈরি করছি ৷ শুরুর দিকে বাবা আপত্তি করেছিলেন ৷ কিন্তু শুরুতেই নজরে পড়ে সাহিত্যিক সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় এবং নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তীর ৷ তারপর শুধুই এগিয়ে গিয়েছি।”

বহু দৈনিক সংবাদপত্রে শুভজ্যোতির শব্দছক প্রকাশিত হয় ৷ বিষয়ভিত্তিক শব্দছকও তিনি করেন ৷ ২০১৮ সালে তাঁর তৈরি শব্দছক ফ্যাশন ডিজাইনাররা ব্যবহার করেছেন পূজো ট্রেন্ড হিসাবে ৷ ব়্যাম্পে হেঁটেছিলেন মডেলরা । লকডাউনের সময় করোনা নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে শব্দছক তৈরি করেছিলেন ৷ এত চাহিদা যখন রয়েছে সেখান থেকেই আলাদা কিছু করার পরিকল্পনা করেন। যার ফল ‘শব্দবাণ’ ৷