Medical Council : মেডিকেল কাউন্সিল ভোটে রিগিং বিতর্কে নথি সংরক্ষণ নির্দেশ

18

রাজ্য মেডিকেল কাউন্সিল(Medical council) নির্বাচনের গণনায় কারচুপির একাধিক অভিযোগ উঠেছিল। সেই অভিযোগে মামলা হাইকোর্ট অবধি গড়িয়েছিল। সেই মামলায় শুক্রবার কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করল কলকাতা হাইকোর্ট। মামলার শুনানিতে, ‌এই নির্বাচনের সমস্ত নথি সংরক্ষণ করার নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। 

শুক্রবার হাইকোর্টের অবকাশকালীন বিচারপতি জয় সেনগুপ্তর বেঞ্চে এই মামলার শুনানি হয়। রাজ্য মেডিকেল কাউন্সিলিং নির্বাচনে জাল ব্যালটে ভোট গ্রহণের অভিযোগ উঠেছিল। মামলা করেছিলেন চিকিৎসক বিশ্বজিৎ ভাদুরি-সহ আরও কয়েকজন। মামলাকারীদের দাবি ছিল, এই নির্বাচন বাতিল করা হোক। শুক্রবার সেই মামলার শুনানিতেই কড়া পদক্ষেপ হাই কোর্টের। 

আদালতের তরফে জানানো হয়েছে, মেডিক্যাল কাউন্সিল নির্বাচনের ফল প্রকাশ করার ক্ষেত্রে কোনও বাধা নেই। এই বিষয়ে আদালত হস্তক্ষেপ করবে না। তাই ফল ঘোষণায় স্থগিতাদেশ আপাতত দিচ্ছে না আদালত। তবে নির্বাচনের কোনও নথি নষ্ট করা যাবে না। নির্বাচনের যাবতীয় নথি সংরক্ষণ করতে হবে। আগামী দিনে আদালতের নির্দেশের উপর ফলাফলের ভবিষ্যৎ নির্ভর করবে। পুজোর ছুটির পর নিয়মিত বেঞ্চেই এই মামলার শুনানি হবে বলো, আজ শুনানিতে জানিয়েছে বিচারপতি জয় সেনগুপ্ত।

প্রসঙ্গত, রাজ্যের মেডিকেল কাউন্সিলের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত পরিস্থিতি দেখা দিয়েছিল ভোট গণনার দিনেই। সরাসরি অভিযোগ উঠেছিল রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। এমনকি বিরোধী পক্ষের প্রার্থীদের স্লোগান দিতেও দেখা যায়। গণনা কেন্দ্রের ভিতরে কেন বিরোধীদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না? এই বলেও বিরোধীপক্ষের তরফ থেকে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে।

 আদালতে নির্দেশ অনুযায়ী সিসিটিভি লাগিয়ে ভোট প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার নির্দেশ থাকলেও তা হয়নি। জাল ব্যালট ব্যবহার করার অভিযোগ তোলা হয়। এক রঙের খাম এবং এক রঙের ব্যালট এমনকি এনভেলাপও পাওয়া গিয়েছে বলেও অভিযোগ জানানো হয়েছে। একগুচ্ছ অভিযোগের পর এবং আদালতের নির্দেশ‌ না মেনে সিসিটিভি ছাড়াই ভোট গ্রহণ করায় আগামী দিনে এই মামলা শুনানিতে আদালতের কি রায় হতে চলেছে, পুজো ছুটির পর নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্যই মুখিয়ে রয়েছেন অভিযোগকারী এবং বিরোধী দলের নেতৃত্বরা।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)