Sunday, January 29, 2023

অন্য অম্বিকেশ: এবার মমতাকে খুনের হুমকি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকের

- Advertisement -

নিউজ ডেস্ক: ২০১২ সালে একটি কার্টুন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে পড়েছিল। সোনার কেল্লার দৃশ্যর আদলে বানানো মমতা-মুকুল-দীনেশ ত্রিবাদীকে নিয়ে কার্টুনটি ছিল ‘‌দুষ্টু লোক?‌ ভ্যানিশ’‌। ওই কার্টুন-কাণ্ডে ২০১২ সালের এপ্রিলে গ্রেফতার হয়েছিলেন অধ্যাপক অম্বিকেশ মহাপাত্র। তাঁর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা চালু রয়েছে এখনও। যদিও তথ্যপ্রযুক্তি আইনের যে ৬৬এ ধারায় তাঁর বিরুদ্ধে চার্জশিট হয়েছিল, তা ২০১৫ সালে সুপ্রিম কোর্টে বাতিল হয়ে গিয়েছে।

আরও পড়ুন গোয়েন্দা রিপোর্ট: ত্রিপুরায় দূর্বল হচ্ছে বিজেপি, ঘর গোছাচ্ছে মানিক-মমতা

বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ তুলেছিলেন, কার্টুনে ‘ভ্যানিশ’ কথাটি লিখে আসলে তাঁকে মেরে ফেলার বার্তা ছড়ানো হচ্ছে৷ গোটা বিষয়টিকে সাইবার ক্রাইম বলেও উল্লেখ করেছিলেন তিনি৷ চলতি বছরেও বিধানসভা ভোটের আগে থেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর আক্রমণ শুরু হয়েছিল। নন্দীগ্রামে তাঁর পায়ে চোটের পিছনে ষড়যন্ত্র ছিল বলে অভিযোগ উঠেছিল। একাধিক জনসভা থেকে তিনি দাবি করেছিলেন তাঁকে মেরে ফেলার চক্রান্ত করছে বিরোধীরা। তারপর তিনি তৃতীয়বার রাজ্যে ক্ষমতায় এসেছেন বিপুল মানুষের জনসমর্থন নিয়ে। তখন থেকেই তাঁর উপর টার্গেট ছিল বলে মনে করেন রাজ্যের গোয়েন্দারা।

- Advertisement -

এবার সরাসরি তাঁকে খুনের হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ। জানা গিয়েছে, ফেসবুক গ্রুপে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন কাজ নিয়ে তর্কবিতর্ক চলাকালীন হঠাৎ ‘মুখ্যমন্ত্রীকে হত্যা করতে চাই’ বলে ওঠেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক অধ্যাপক। তাঁর পর পর মন্তব্য দেখে অনুমান, স্ত্রীর চাকরি না থাকার কারণেও তিনি রাজ্য সরকারকে দায়ী করেছেন। তিনি ওয়েবকুটার সদস্য। জুওলজি বিভাগে অধ্যাপনা করেন। জানা গিয়েছে, এর আগেও একাধিকবার এই অধ্যাপককে ফেসবুকে বিতর্কিত মন্তব্য করতে দেখা গিয়েছে। নির্বাচনের আগেও তাঁকে একাধিকবার ফেসবুক কমেন্টের জন্য পরিচিতরা সতর্ক করেছিলেন বলে জানা গিয়েছে।

fir copy

অভিযোগকারীদের বক্তব্য, একজন অধ্যাপক যদি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সম্পর্কে এই ভাষায় কথা বলেন তা হলে নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়ে অবশ্যই ভাবতে হয়। তাই তাঁরা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যে লালবাজারে বিষয়টি জানাবেন। ফেসবুক কমেন্টে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে খুন করার হুমকি পোস্ট করার অভিযোগে অধ্যাপক অরিন্দম ভট্টাচার্যের নামে ইতিমধ্যেই লালবাজারে FIR দায়ের হয়েছে