জিম খুলুন! ভোট গণনার আগের দিন রাহুলকে কেন এই পরামর্শ মোদীর মন্ত্রীর?

বুথফেরৎ সমীক্ষার ফল ফুৎকারে উড়িয়েছেন রাহুল গান্ধী সহ তাবড় কংগ্রেস নেতা। শশী থারুর তো সমীক্ষাগুলোর ফলাফলকে ‘হাস্যকর’ বলেছেন। যা নিয়েই রাহুল গান্ধীরে জিম খোলার পরামর্শ…

Rahul Gandhi should open a gym says Union minister Rajeev Chandrasekhar jabs Congress on exit polls, রাহুল গান্ধী জিম খুলুন

বুথফেরৎ সমীক্ষার ফল ফুৎকারে উড়িয়েছেন রাহুল গান্ধী সহ তাবড় কংগ্রেস নেতা। শশী থারুর তো সমীক্ষাগুলোর ফলাফলকে ‘হাস্যকর’ বলেছেন। যা নিয়েই রাহুল গান্ধীরে জিম খোলার পরামর্শ দিলেন তিরুবনন্তপুরমের বিজেপি প্রার্থী তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজীভ চন্দ্রশেখর। মোদী সরকারের মন্ত্রীর কথায়, ‘রাহুল গান্ধীর একটি জিম চালু করা উচিত। শশী থারুরের উচিত একটি ইংরেজি প্রশিক্ষণের প্রতিষ্ঠান চালু করা। কংগ্রেস পার্টিতে অনেক লোক আছে যারা খুব আলঙ্কারিক ভাষায় কথা বলেন। আমি মনে করি এই নির্বাচনগুলি তাঁদের একটি নতুন পেশার সন্ধান দেবে।’

মন্ত্রী রাজীভ চন্দ্রশেখরের সংযোজন, ‘ভারতের জনগণ এমন রাজনৈতিক নেতাদের চায় যাঁরা তাঁদের সেবা করতে সক্ষম, যাঁরা দেশবাসীর জীবনকে উন্নত করতে পারে। অবশ্যই এইসব রাহুল গান্ধী বা কংগ্রেস দলের অন্য কেউ করতে পারবেন না।’

   

গণনার আগের দিন আচমকা বেড়ে গেল বাংলার ৯ কেন্দ্রে ভোটদানের হার!

অধিকাংশ বুথফেরৎ সমীক্ষায় ইঙ্গিত লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি-নেতৃত্বাধীন এনডিএ বিজয়ী হবে। সমীক্ষার সেই ফলাফলকে ‘হাস্যকর’ বলে তোপ দেগেছেন শশী। তিনবারের কংগ্রেস সাংসদ বলেছেন, ‘আমরা বুথফেরৎ সমীক্ষার ফল নিয়ে সন্দিহান। কারণ আমরা সমগ্র দেশে প্রচার চালিয়েছি। জনগণের মনে মনে কী চায় তা নিয়ে আমাদেরও একটি ধারনা রয়েছে। তাই আমরা বিশ্বাস করি না যে, জনগণের ইচ্ছা এইসব সমীক্ষায় ধরা পড়েছে। কংগ্রেস সভাপতি, ইন্ডি জোটের শরিকদের সঙ্গে আলোচনার পর দাবি করেছেন যে, তিনি নিশ্চিত যে বিরোধী শিবির ২৯৫ আসন পাচ্ছে। আমি সেই সংখ্যায় অনড় রয়েছি।’

কংগ্রেসের প্রাক্তন সভানেত্রী সনিয়া গান্ধী বুথফেরৎ সমীক্ষা প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘আমাদের অপেক্ষা, এবং শুধুই অপেক্ষা করতে হবে এবং দেখতে হবে। আমরা খুব আশাবাদী যে আমাদের ফলাফলগুলি এক্সিট পোল যা দেখাচ্ছে তার সম্পূর্ণ বিপরীত হবে।’ কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধীও সমীক্ষার ইঙ্গিত উড়িয়ে দাবি করেন, ‘এসব এক্সিট পোল নয়, এগুলো মোদী মিডিয়া পোল। এটা মোদীজির পোল। এগুলো তাঁরই তাঁর কল্পনাপ্রসূত।’