Hindi Debate: হিন্দি না বললে ভারত ছেড়ে চলে যাওয়ার পরামর্শ যোগীর মন্ত্রীর

68
dr sanjay nishad

যারা হিন্দি (Hindi) ভাষাকে ভালোবাসবে না তাদের বিদেশি হিসেবে চিহ্নিত করা হবে। যারা হিন্দি ভাষায় কথা বলবে না তাদের উচিত এ দেশ থেকে চলে যাওয়া। লখনউয়ে চাঞ্চল্যকর এই মন্তব্য করেন উত্তরপ্রদেশের মৎস্যমন্ত্রী সঞ্জয় নিষাদ। উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সরকারের এই মন্ত্রীর বক্তব্যের কড়া সমালোচনা শুরু হয়েছে।

সঞ্জয় বিজেপির শরিক দল নিষাদ পার্টির বিধায়ক। লখনউয়ের অনুষ্ঠানে এই বিতর্কিত মন্তব্য করেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, কেউ যদি হিন্দিকে ভাল না বাসেন তবে মনে করতে হবে যে ওই ব্যক্তি বিদেশী। আমরা প্রতিটি আঞ্চলিক ভাষাকে শ্রদ্ধা করি। কিন্তু মনে রাখতে হবে এটা এক দেশ। আমাদের সংবিধানে বলা আছে ভারত হল হিন্দুস্তান। যার অর্থ হল হিন্দিভাষী মানুষের দেশ। আইন অনুযায়ী হিন্দি হল আমাদের জাতীয় ভাষা। যারা সেই আইন অমান্য করবে তাদের জেলে থাকা উচিত।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী আরও বলেন যারা হিন্দিতে কথা বলবেন না তাঁদের জন্য কিন্তু হিন্দুস্তান নয়। তাঁদের উচিত এই দেশ ছেড়ে অন্য কোনও জায়গায় চলে যাওয়া।

নিষাদ পার্টির প্রধান আরও বলেন, কিছু লোক হিন্দি ভাষা বলতে লজ্জা পায়। তারা হিন্দি নিয়ে বিতর্ক তৈরি করে অহেতুক পরিবেশটাই কলুষিত করছে। এরা দেশে উত্তেজনা তৈরির চেষ্টা করছে। তবে শীঘ্রই সাধারণ মানুষ এদের মুখের মত জবাব দেবে। নিষাদ পার্টির প্রধানের এই মন্তব্য নিয়ে অবশ্য বিজেপি মুখ খোলেনি।

রাজনৈতিক মহলের অনেকেই মনে করছেন, হিন্দিকে রাষ্ট্রভাষা করার যে উদ্যোগ বিজেপি নিয়েছে এই ঘটনা তারই প্রমাণ। সে কারণেই তারা মন্ত্রীর মন্তব্যে কোনও প্রতিক্রিয়া জানায়নি

তবে সঞ্জয় নিষাদের হিন্দি নিয়ে এই মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন রাজ্যের প্রধান বিরোধীদল সমাজবাদী পার্টি। উল্লেখ্য সম্প্রতি হিন্দিকে রাষ্ট্রভাষা করার ব্যাপারে বিশেষ উদ্যোগী হয়েছেন অমিত শাহ। বিতর্ক থামাতে আসরে নেমেছেন সংঘ প্রধান মোহন ভাগবত। তার পরেও বিজেপির শরিক দলের বিধায়ক যেভাবে হিন্দি নিয়ে তীব্র বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন তা যথেষ্ট শোরগোল ফেলেছে।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)