লতার অবস্থা জটিল, হাসপাতালে এক ঝাঁক তারকা, কী বলছেন তাঁরা

77

‘মুম্বই:সময় যত এগোচ্ছে শারীরিক পরিস্থিতির আরও যেন অবনতি হচ্ছে। দিদিকে দেখতে তড়িগড়ি তাই হাসপাতালে পৌঁছলেন বোন আশা ভোঁসলে। আশা ছাড়াও হাসপাতালে পৌঁছলেন পরিচালক মধুর ভান্ডারকর, সু্প্রিয়া সুলে এবং মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের স্ত্রী রশমি ঠাকরে। শোনা গিয়েছিল, রাজ ঠাকরেও এক বার দেখা করে গিয়েছেন গায়িকার সঙ্গে।

আজ আবার লতাজীকে ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছে। যেই কারণেউ দিদিকে দেখতে হাসপাতালে ছুটে আসেন বোন। হাসপাতালে ঢোকার মুখে আশা বলেন, ‘‘দিদির শারীরিক অবস্থার যাতে উন্নতি হয়, তার জন্য আপনারা প্রার্থনা করুন।” হাসপাতালে লতাকে দেখতে গিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। তিনি বলেন, ‘‘প্রধানমন্ত্রী চান, লতা তাড়াতাড়ি সুস্থ উঠুন।’’

এদিকে প্রাক্তন শিবসেনার প্রধান বালাসাহেব ঠাকরের সঙ্গে পারিবারিক সম্পর্ক ছিল লতার। প্রকাশ্যে একাধিক বার বালাসাহেবের প্রশংসা শোনা গিয়েছে লতার কণ্ঠে। পরবর্তীকালে বালাসাহেবের ছেলে উদ্ধব ঠাকরে ক্ষমকায় আসার পরেও সেই সুসম্পর্ক বজায় ছিল লতার। এখন নবতিপর সঙ্কটকালে পাশে দেখা গেল উদ্ধব-পরিবারকে। এঁরা ছাড়াও লতার বোন আশা ভোঁসলে, পরিচালক মধুর ভান্ডারকর, সু্প্রিয়া সুলে পৌঁছে গিয়েছেন হাসপাতালে।

ফের লতা মঙ্গেশকরের শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি। আবার ভেন্টিলেটর সাপোর্ট দেওয়া হয়েছে কিংবদন্তি গায়িকাকে। সেইসঙ্গে কড়া পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে তাঁকে। সংবাদসংস্থা এএনআইকে এমনটাই জানিয়েছেন মুম্বইয়ের ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালের চিকিৎসক প্রতীত সামদানি।

গত ৮ জানুয়ারি ৯২ বছর বয়সি বর্ষীয়ান গায়িকা করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। কোভিডের পাশাপাশি নিউমোনিয়াও রয়েছে ৯২ বছরের শিল্পীর। তার পর থেকেই ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে রয়েছেন কিংবদন্তি। তাঁর চিকিৎসা করছেন চিকিৎসক প্রতীত সামদানি ও তাঁর দল। শিল্পীর সুস্থতা কামনা করে বিশেষ যজ্ঞ করেন অযোধ্যার পুরোহিতরা। জপ করা হয় মহামৃত্যুঞ্জয় মন্ত্র। তাঁকে আইসিইউ-তে রাখা হয়।