Covid 19: এশিয়া ও ইউরোপের ৫৩টি দেশকে করোনা সতর্কতা দিল হু

শীতের আগেই বার বার সতর্কতা দিচ্ছে WHO

181
covid-19-who-alert-on-europe-and-asia

News Desk: করোনা (coronavirus) মহামারি এখনও শেষ হয়ে যায়নি বরং ভাইরাস নতুন করে আঘাত হানার জন্য প্রস্তুতি শুরু করেছে। এভাবেই এশিয়া ও ইউরোপে সতর্কতা দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)। 

হু জানাচ্ছে,গত বছর যে সময় করোনার (coronavirus) দ্বিতীয় ঢেউ গোটা বিশ্বে আছড়ে পড়েছিল, ঠিক তেমনই এক সময়ের সামনে এসে দাঁড়িয়ে আছি। বিশেষ করে ইউরোপ (europe) ও এশিয়ার (asia) কমপক্ষে ৫৩ টি দেশ এক ভয়াবহ সন্ধিক্ষণে এসে দাঁড়িয়েছে। এই দেশগুলিতে করোনাভাইরাস যে কোন সময় মহামারীর রূপ নিতে পারে।

শুক্রবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ইউরোপের ডিরেক্টর হ্যান্স ক্রুজ (Hans cruz) বলেন, এই মুহূর্তে ইউরোপ এবং এশিয়ার ৫৩টি দেশে সংক্রমণের হার অত্যন্ত উদ্বেগজনক। ওই সমস্ত দেশগুলির বাস্তব পরিস্থিতি বিচার করে আশঙ্কা করা হচ্ছে, ২০২২-এর ফেব্রুয়ারির মধ্যে আরও অন্তত পাঁচ লক্ষ মানুষ করোনায় প্রাণ হারাতে পারেন। করোনার নতুন স্ট্রেন যেভাবে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে তা অত্যন্ত ভয়াবহ। এই গতিতে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে থাকলে কয়েক মাসের মধ্যেই নতুন করে ভয়াবহ আকার ধারণ করবে করোনা।

ক্রুজ আরও বলেন গোটা বিশ্ব এক ভয়াবহ সন্ধিক্ষণের সামনে এসে দাঁড়িয়েছে। অনেক দেশেই সংক্রমণের হার ফের রেকর্ড স্তরে পৌঁছেছে। এই অবস্থা থেকে বাঁচতে হলে ইউরোপের একাধিক দেশকে আরও অনেক সতর্ক হতে হবে। হতে হবে পরিশ্রমী। একই কথা প্রযোজ্য এশিয়ার কয়েকটি দেশের ক্ষেত্রেও। এশিয়া ও ইউরোপের ওই সব দেশ যদি সংক্রমণে রোধে অবিলম্বে উপযুক্ত ব্যবস্থা না নেয় তবে সভ্যতা এক চরম বিপদের সামনে গিয়ে পৌঁছবে।

হু-র এই আশঙ্কা যে আদৌ অমূলক নয়, ইতিমধ্যেই তার প্রমাণ মিলেছে। রাশিয়া-সহ একাধিক দেশে সংক্রমণ হু হু করে বাড়ছে। এই অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে নিষেধাজ্ঞা মেনে চলাই একমাত্র পথ। মানুষ যদি সেই নিষেধাজ্ঞা না মানে তবে নিজেরাই নিজেদের বিপদ ডেকে আনবে।

ইউরোপ ও আমেরিকায় শীত আসছে। এই শীতে সংক্রমণ আরও দ্রুত ছড়ায়। তাই মানুষকেও আরও অনেক বেশি সতর্ক থাকতে হবে। অন্যথায় করোনা মানুষের জীবনে এক দুর্বিষহ অভিশাপ হিসেবে দেখা দেবে।