Voter ID Card ডাউনলোড হবে এখান থেকে, এখনও তৈরি না হলে অনলাইনে আবেদন করুন

Download Voter ID Card: ভারতের নির্বাচন কমিশন (ইসিআই) 2024 সালের লোকসভা নির্বাচনের সময়সূচী প্রকাশ করেছে। এই নির্বাচন ৭ ধাপে সম্পন্ন হবে এবং ১৯ এপ্রিল প্রথম…

Voter ID card

Download Voter ID Card: ভারতের নির্বাচন কমিশন (ইসিআই) 2024 সালের লোকসভা নির্বাচনের সময়সূচী প্রকাশ করেছে। এই নির্বাচন ৭ ধাপে সম্পন্ন হবে এবং ১৯ এপ্রিল প্রথম ধাপের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। চূড়ান্ত পর্বের ভোট হবে ১ জুন এবং ফলাফল ঘোষণা করা হবে ৪ জুন। নির্বাচনে সবার অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে নির্বাচন কমিশন কঠোর পরিশ্রম করছে।

তবে কিছু মানুষ আছেন যারা Voter ID Card নিয়ে সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। আপনারও যদি ভোটার কার্ড সংক্রান্ত সমস্যা থাকে তাহলে চিন্তা করবেন না। আপনি অনলাইনে ভোটার কার্ড ডাউনলোড করতে পারেন। আপনি যদি ভোটার না হয়ে থাকেন তাহলে অনলাইনেও আবেদন করতে পারবেন।

ভোটার তালিকায় যাদের নাম থাকবে তারাই নির্বাচনে ভোট দিতে পারবেন। তাই ভোটার তালিকায় আপনার নাম বা আপনার পরিবারের সদস্যদের নাম আছে কি না তা পরীক্ষা করা উচিত। ভোটার তালিকায় নাম পরীক্ষা, ভোটার কার্ড ডাউনলোড এবং নতুন ভোটার কার্ড তৈরির মতো কাজ অনলাইনে করা যাবে।

ভোটার কার্ড একটি গুরুত্বপূর্ণ দলিল যা নাগরিকদের নির্বাচনে অংশগ্রহণের অধিকার দেয়। ভারতের নির্বাচন কমিশন (ইসিআই) ভোটার কার্ড প্রদান এবং ভোটার তালিকা বজায় রাখার জন্য দায়ী।

ইসিআই ভোটারদের জন্য অনেক অনলাইন পরিষেবা চালু করেছে, যার মধ্যে রয়েছে ভোটার কার্ড ডাউনলোড করা এবং ভোটার তালিকায় নাম যুক্ত করা। নির্বাচন কমিশনের ভোটার সার্ভিস পোর্টালে (https://voters.eci.gov.in) গিয়ে আপনি অনেক অনলাইন সুবিধা পেতে পারেন।

ভোটার তালিকায় নাম কীভাবে পরীক্ষা করবেন?
আপনি অনলাইনে ভোটার তালিকায় আপনার নাম পরীক্ষা করতে পারেন। এর জন্য এই লিঙ্কে ক্লিক করুন (https://electoralsearch.eci.gov.in/)।

আপনি যদি আপনার EPIC নম্বর মনে রাখেন তবে এটি লিখুন এবং অনুসন্ধান করুন।
আপনি EPIC নম্বর মনে না থাকলে, দ্বিতীয় বিকল্পটি বেছে নিন, আপনার বিবরণ লিখুন এবং অনুসন্ধান করুন।
প্রবেশ করা তথ্য অনুযায়ী, ভোটার তালিকায় আপনার নাম নিবন্ধিত থাকলে তা দেখা যাবে।

কীভাবে ভোটার কার্ড ডাউনলোড করবেন
ভোটার কার্ড ডাউনলোড করতে নির্বাচন কমিশনের ভোটার সার্ভিস পোর্টালে যান (https://voters.eci.gov.in/)।

‘ই-EPIC ডাউনলোড করুন’ লিঙ্কে ক্লিক করুন।

আপনার EPIC নম্বর (ভোটার আইডি নম্বর) বা ফর্ম নম্বর লিখুন।

‘রিকোয়েস্ট ওটিপি’-তে ক্লিক করুন।

আপনার নিবন্ধিত মোবাইল নম্বর বা ইমেল আইডিতে ওটিপি আসবে।

OTP লিখুন এবং ‘জমা দিন’ এ ক্লিক করুন।

আপনার ই-EPIC (ডিজিটাল ভোটার কার্ড) ডাউনলোড করা হবে।

মনে রাখবেন যে ভোটার কার্ড ডাউনলোড করতে, মোবাইল নম্বরটি আগে থেকেই ভোটার কার্ডে নিবন্ধিত থাকতে হবে। মোবাইল নম্বর নিবন্ধিত না হলে ভোটার কার্ড ডাউনলোড হবে না। মোবাইল নম্বর নিবন্ধন করতে, আপনি ফর্ম 8 এর মাধ্যমে অনলাইনে আবেদন করতে পারেন।

ভোটার তালিকায় নাম যোগ করার অনলাইন প্রক্রিয়া

ভোটার তালিকায় আপনার নাম যোগ করার জন্য আপনাকে ভোটার সার্ভিস পোর্টালে যেতে হবে।

এখানে ফর্ম বিভাগে, সাধারণ নির্বাচনের জন্য নতুন নিবন্ধন বিকল্পে ফর্ম 6-এ ক্লিক করুন।
এখন অনলাইনে ফরম 6 সাবধানে পূরণ করুন।
আপনার নাম, জন্ম তারিখ, লিঙ্গ, ঠিকানা ইত্যাদির মতো তথ্য লিখুন।
প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আপলোড করুন।
‘জমা দিন’ এ ক্লিক করুন।

আবেদন করার পরে, অ্যাপ্লিকেশন নম্বর তৈরি হবে, এটি নিরাপদ রাখুন। যদি আপনার ফর্মে কোনো ভুল না থাকে এবং সবকিছু ঠিক থাকে তাহলে আপনার নাম ভোটার তালিকায় যুক্ত হবে। প্রয়োজনীয় নথিগুলির মধ্যে, বয়স যাচাইয়ের জন্য জন্ম সনদ, দশম শ্রেণীর শংসাপত্র ইত্যাদির মতো নথি প্রয়োজন।

এ ছাড়া আইডি প্রুফের জন্য আধার কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স ইত্যাদি লাগবে এবং ঠিকানা প্রমাণের জন্য বিদ্যুৎ বিল, রেশন কার্ড ইত্যাদি লাগবে। আপনার যদি কোনো ধরনের সাহায্যের প্রয়োজন হয়, আপনি নির্বাচন কমিশনের হেল্পলাইন নম্বরে (1950) কল করতে পারেন।