বন্ধের পথে Google Hangouts, ইউজারদের জন্য নয়া বন্দোবস্ত সংস্থার

83
google-hangouts

প্রায় ৯ বছর পরিষেবা দেওয়ার পর এবার বন্ধ হতে চলেছে Google Hangouts (গুগল হ্যাংআউটস পরিষেবা)। টেক জায়ান্টের সাম্প্রতিক ঘোষণা অন্তত তাই বলছে। এই জনপ্রিয় Hangouts মেসেজিং পরিষেবা ২০১৩ সালের ১৫ মে-তে চালু হয়েছিল। কিন্তু এখন Google এটি বন্ধ করে দিচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে, Hangouts-এর বিদ্যমান ইউজারদের Google-এর নতুন মেসেজিং পরিষেবা Google Chat (গুগল চ্যাট)-এ ট্রান্সফার করা হবে। সংস্থার তরফে ঘোষণা করা হয়েছে যে ২২শে মার্চ থেকে পরিবর্তনটি কার্যকরী হবে। মূলত Google Chat-কে ডিফল্ট মেসেজিং অ্যাপ হিসেবে ব্যবহার করাই সংস্থার Hangouts বন্ধ করার উদ্দেশ্য বলে মনে হচ্ছে।

জানা গিয়েছে, জিমেইল ব্যবহারকারীরা যখন ওয়েব বা মোবাইল অ্যাপ থেকে গুগল হ্যাংআউটস খুলবেন তখন তাদের গুগল চ্যাটে রিডাইরেক্ট করা হবে। কোম্পানির তরফে জানানো হয়েছে, কিছু বিশেষ ক্ষেত্র ছাড়া হ্যাংআউটস ব্যবহারকারীদের ডেটা অদৃশ্য হবে না। এই পরিস্থিতিতে, ব্যবহারকারীদের আলাদাভাবে ডেটা সংরক্ষণ করতে হবে না। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে, হ্যাংআউটসে যদি খুব গুরুত্বপূর্ণ কোনো ডেটা থাকে, তাহলে তা আলাদাভাবে সংরক্ষণ করাই ভালো।

প্রসঙ্গত, গুগল হ্যাংআউটস বন্ধের প্রক্রিয়াটি এমনিতে কোনো নতুন বিষয় নয়। এই প্রক্রিয়াটি গুগল ২০২০ সালের জুন মাসে শুরু করেছিল। সেই সময় কোম্পানির পরিকল্পনা ছিল মেসেজিং পরিষেবাটিকে জিমেইলের সঙ্গে একীভূত করার। সেক্ষেত্রে বলে রাখি, এখন গুগল চ্যাট নিয়ে বিভ্রান্ত হওয়ার দরকার নেই। এই পরিষেবাটি ২০১৭ সালে Google Talk নামে চালু করা হয়েছিল, যা পরে গুগল চ্যাটে পরিবর্তিত হয়েছে।

এদিকে গুগল বলেছে যে হ্যাংআউটস থেকে গুগল চ্যাটে রিডাইরেকশনের বিষয়টি কেবল ওয়ার্কস্পেস ব্যবহারকারীদের পাশাপাশি পুরনো জি স্যুট বেসিক এবং ব্যবসায়িক ব্যবহারকারীদের প্রভাবিত করবে। সোজা ভাষায় বললে এটি ব্যবসা বা প্রতিষ্ঠানের অংশ হিসাবে যারা গুগলের পরিষেবা ব্যবহার করে তাদের ওপর কার্যকরী হবে৷ তাই আমার বা আপনার মত সাধারণ ইউজারদের বিষয়টি নিয়ে অত ব্যস্ত না হলেও চলবে।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)