Bangladeah: যুদ্ধের জন্য বাংলাদেশ সেনাকে প্রস্তুতির নির্দেশ, সীমান্তে ভয়াবহ সংঘর্ষ

যে কোনও মুহূর্তে অভিযানে নামবে বাংলাদেশ সেনা। নৌ ও বিমান বাহিনী প্রস্তুত।

91

মায়ানমারের (Myanmar)  অভ্যন্তরে দেশটির সামরিক সরকার বনাম বিদ্রোহী আরাকান আর্মি (Arakan Army)  গোষ্ঠীর সংঘর্ষ তীব্র হয়েছে। দুপক্ষের সংঘর্ষ চলছে বাংলাদেশের (Bangladesh) সীমান্ত এলাকার অতি নিকটে। গুলি, বোমা ও মর্টার শেল উড়ে এসে পড়ছে বাংলাদেশে। পরিস্থিতি বুঝে সীমান্ত এলাকায় যে কোনও সময় সামরিক অভিযানের জন্য সেনাবাহিনী প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিল (Sheikh Hasina) শেখ হাসিনার সরকার।

বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, মায়ানমার ইস্যুতে বাংলাদেশের সেনাবাহিনী প্রস্তুত রয়েছে। ঢাকায় তিন বাহিনীর প্রধান ও পুলিশ প্রধানের সঙ্গে বিশেষ বৈঠক শেষে এ কথা বলেন তিনি।

বাংলাদেশের সেনার অভ্যন্তরে সাজো সাজো রব। সীমান্ত এলাকায় অভিযান নিয়ে সেনাবাহিনীর বাংলাদেশের সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ বলেন আমরা প্রস্তুত।

Bagladesh Army

বাংলাদেশের সঙ্গে দুটি দেশের আন্তর্জাতিক সীমান্ত। একটি ভারত  ও অন্যটি মায়ানমার। এর মধ্যে চট্টগ্রাম বিভাগ লাগোয়া মায়ানমারে সঙ্গে আন্তর্জাতিক সীমান্ত এলাকা গরম।

Bagladesh Army

বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বাসস) জানাচ্ছে, চট্টগ্রাম বিভাগের লাগোয়া মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশে চলছে বর্মী সেনা ও বিদ্রোহী আরাকান আর্মির সংঘর্ষ। দুপক্ষের গুলির লড়া়ইতে বাংলাদেশের আকাশ সীমা বারবার লঙ্ঘন করছে বর্মী সেনার হেলিকপ্টার ও যুদ্ধ বিমান। মায়ানমার থেকে গুলি চলছে। সেই গুলি ও মর্টার শেলে জখম হচ্ছেন বাংলাদেশের অভ্যন্তরে নাইখ্যংছড়ি এলাকার বাসিন্দারা। সীমান্ত পাহারায় সতর্ক আছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

BgB guards deployed durga puja pandals

ঢাকায় নিযুক্ত মায়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে সতর্ক করেছে বাংলাদেশ সরকার। ঢাকার অভিযোগ, মায়ানমারের অভ্যন্তরীণ গোলোযোগের জন্য বাংলাদেশের জনগণ বিপদের মুখে।

Myanmar military attack started on rebel force controlled chinland states

এদিকে বিবিসির খবর, ২০২১ এর ফেব্রুয়ারি মাসে মায়ানমারের নির্বাচিত আউং সান সু কির সরকারকে উৎখাত করে বর্মী সেনা। রক্তপাতহীন অভ্যুত্থানে বন্দি হন সু কি সহ সরকারের সব মন্ত্রীরা। এর পর থেকে গণতন্ত্র ফেরানোর দাবি নিয়ে বর্মী জনতা ও সেনার মধ্যে সংঘর্ষে বহু মৃত্যু হয়েছে। আর মায়ানমারের বিভিন্ন সশস্ত্র গোষ্ঠী সরাসরি বর্মী সেনার উপর হামলা চালাতে শুরু করেছে।

Myanmar military attack started on rebel force controlled chinland states

বাসস জানাচ্ছে, দু পক্ষের সংঘর্ষ এতটাই যে বাংলাদেশের সরকার উদ্বেগে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান আমরা কাউকে ভয় করি না। আমরা যুদ্ধ করে স্বাধীন করেছি, আমরা কাউকে কাউন্ট করি না। বাংলাদেশ সেনাবাহিনী যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য প্রস্তুত।