ভোট মিটতেই জামিন পেলেন তৃণমূল নেতা আরাবুল ইসলাম

লোকসভা ভোট মিটতেই জামিন পেলেন ভাঙড়ের তৃণমূল নেতা তথা প্রাক্তন বিধায়ক আরাবুল ইসলাম (Arabul Islam)। ফেব্রুয়ারি মাসে আরাবুলকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। পঞ্চায়েত ভোটের আগে মইনুদ্দিন…

লোকসভা ভোট মিটতেই জামিন পেলেন ভাঙড়ের তৃণমূল নেতা তথা প্রাক্তন বিধায়ক আরাবুল ইসলাম (Arabul Islam)। ফেব্রুয়ারি মাসে আরাবুলকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। পঞ্চায়েত ভোটের আগে মইনুদ্দিন মোল্লা নামে ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্ট (আইএসএফ)-এর এক নেতাকে খুনের অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছিল আরাবুলদের নামে। 

সেই মামলাতেই আরাবুলকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। এর আগে বেশ কয়েকবার হাইকোর্টে জামিনের আবেদন জানান তিনি। আবশেষে আজ, মঙ্গলবার আরাবুল ইসলামের জামিন মঞ্জুর করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং বিচারপতি প্রসেনজিৎ বিশ্বাসের ডিভিশন বেঞ্চ ভাঙড়ের তৃণমূল নেতার জামিনের নির্দেশ দিয়েছেন।

   

ভাঙড়ের প্রাক্তন বিধায়ক আরাবুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছিল উত্তর কাশীপুর থানার পুলিশ। আরাবুলের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ ছাড়াও সরকারি সম্পত্তি ভাঙচুর, আগ্নেয়াস্ত্র-সহ দলবদ্ধ ভাবে আক্রমণের অভিযোগও রয়েছে।

শওকত মোল্লার বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার, জরিমানার টাকায় হাইকোর্ট চত্বরে গাছ বসানোর নির্দেশ

২০২৩ সালের পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময়ে ভাঙড়ে লাগাতার হিংসার ঘটনা ঘটেছিল। ১৫ জুন মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিনে খুন হন মইনুদ্দিন মোল্লা নামে এক আইএসএফ কর্মী। সেই ঘটনায় নাম জড়ার তৃণমূলের দোর্দণ্ডপ্রতাপ নেতা আরাবুল ইসলামের। সেই ঘটনার ৮ মাস পর গ্রেফতার করা হয় আরাবুলকে। আর আজ জামিন পেলেন তিনি।

২০০৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে ভাঙড় আসনে তৃণমূলের টিকিটে জিতেছিলেন আরাবুল ইসলাম। সিপিএম প্রার্থী মোশারফ হোসেন লস্করকে হারান তিনি। সেই ভোটে বামফ্রন্টের ২৩৫ আসন জয়ের মধ্যেও ভাঙড়ে আরাবুলের জয় তৃণমূলের কাছে ছিল বড় প্রাপ্তি। সেই থেকেই রাজ্য রাজনীতিতে আলোচনায় উঠে আসেন আরাবুল। 

কেলেঙ্কারি ফাঁস! রেশন দুর্নীতির লক্ষ লক্ষ টাকা ইডিকে ফেরত দিতে চান ঋতুপর্ণা