GTA Poll: সাম্রাজ্যের পতন দেখলেন গুরুং, পাহাড়ের নতুন রাজা অনীত থাপা

ক্ষমতার জন্য গুরুংয়ের ভরসা মমতা

61

চর্চিত গোর্খাল্যান্ড টেরিটোরিয়াল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (GTA Poll) ভোটে এক দশক আগেও ছিল বিমল গুরুংয়ের হুকুমদারি। গোর্খাল্যান্ড আবেগ নিয়ে গুরুং যেভাবে তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপির মধ্যে আসা যাওয়া করে নিজের রাজনৈতিক ক্ষমতা ধরে রেখেছিলেন সেটি গত পুরনির্বাচনে শেষের ইঙ্গিত দেয়। বুধবার গুরুংয়ের রাজনৈতিক কফিনে দার্জিলিং ও কালিম্পংবাসী একযোগে পেরেক মেরে দিলেন। জিটিএ ভোটে জয়ী হলেন অনীত থাপা।

পাহাড়ি এলাকায় আর গোজমুমো(গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা) ক্ষমতাসীন নয়। নতুন দল ভারতীয় গোর্খা প্রজাতান্ত্রিক মোর্চা (বিজিপিএম)। ভোটে হারল দার্জিলিং পুরসভায় ক্ষমতাসীন অজয় এডওয়ার্ডের হামরো পার্টি। আরও তাৎপর্যপূর্ণ, জিটিএ ভোটে ফুটল তৃণমূল কংগ্রেসের জোড়াফুল।

পড়ুন: TMC: কাঞ্চনজঙ্ঘা থেকে তিস্তাপার জুড়ে হাসলেন মমতা, গুরুং-অশোকের খেল খতম

একনজরে জিটিএ ফলাফল:

মোট আসন ৪৫টি
বিজিপিএম জয়ী ২৬ আসনে
হামরো পার্টি জয়ী – ৭ আসনে
তৃ়ণমূল কংগ্রেস জয়ী – ৫ আসনে
নির্দল জয়ী – ৭ আসনে

পাহাড়ি এলাকায় তৃণমূলের পায়ের তলার মাটি শক্ত হচ্ছে, তা অনেক আগে থেকেই আন্দাজ করতে পেরেছিল ঘাসফুল শিবির। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরাসরি প্রাক্তন জিটিএ চেয়ারম্যান বিনয় তামাংকে দলে টানেন। তিনি জয়ী হয়ে বলেছেন, এই জয় পাহাড়ের।

জিটিএ ভোটে মূল লড়াইয়ে অজয় এডওয়ার্ড ও অনীত থাপার দল যেভাবে ক্ষমতাসীন ও বিরোধীদল হয়ে গেল তাতে আগামী দিনগুলিতে পাহাড়ি রাজনীতির ক্ষেত্রে নতুন সমীকরণ তৈরি হতে চলেছে। বিজেপি তাদের লোকসভা আসনটি ধরে রাখতে দুটি দলের সঙ্গে সংযোগ করতে পারে। কারণ, গুরুংয়ের রাজনৈতিক ভবিষ্যত প্রশ্নের মুখে। যদিও জিটিএ ভোটে জয়ী নির্দলরা সবাই গুরুং ঘনিষ্ঠ। তবে তারা কতদিন ঘনিষ্ঠতা দেখাবেন সেটিও চর্চিত হচ্ছে।

আরও পডুন: পুর-উপনির্বাচনে BJP শূন্যতেই সন্তুষ্ট, বিরোধী আসনে বাম

পাহাড়ের নতুন রাজা অনীত থাপা। দার্জিলি ও কালিম্পং দুই জেলার দুই বিশ্ববিখ্যাত শৈলশহর ও পাহাড়ি অঞ্চল জুড়ে রাজত্ব চালাবেন তিনি। জিটিএর বিরোধিতা করে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছে বিজেপি এবং বিমল গুরুংরা। তবে নির্দল প্রার্থীদের মধ্যে অনেকেই গুরুং শিবিরের বলেই পরিচিত।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Facebook পেজ)