Travel: উত্তরবঙ্গের বেশকিছু জায়গা যেখানকার প্রাকৃতিক শোভা আপনাকে মুগ্ধ করবে

36

বাঙালি ভ্রমণপ্রিয় (Travel)। আর পশ্চিমবঙ্গবাসীর কাছে উত্তরবঙ্গ (North bengal) হল তাদের স্বপ্নের জায়গা। তবে পশ্চিমবঙ্গবাসী বললে ভুল বলা হবে সারা দেশ জুড়ে মানুষ এই উত্তরবঙ্গে আসে এর প্রকৃতির শোভা দেখতে। একদিকে রয়েছে পাহাড় আর অন্যদিকে রয়েছে ঘন বনভূমি। উত্তরবঙ্গ এলে মনে হয় যেন প্রকৃতির খুবই কাছে চলে আসা যায়।

আসুন জেনে নেওয়া যাক, উত্তরবঙ্গের বেশ কিছু জায়গা যা শহরাঞ্চলের কোলাহলের থেকে বেশ দূরে অবস্থিত। যদি বেশ নিলিবিলিতে কিছুদিন কাটিয়ে আসতে চান তাহলে তার জন্য শ্রেষ্ঠ কিছু জায়গা।

দারাগাওঁ – কালিম্পং থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত দারাগাওঁ গ্রামটি। এই গ্রামের বিশেষ আকর্ষণ হচ্ছে অর্কিড ফুল। অর্কিড ফুলের চাষ সেই গ্রামের বেশিরভাগ বাড়িতেই দেখতে পাওয়া যায়। শান্ত প্রকৃতির বুকে রঙিন এই গ্রামটি ঘুরতে যাওয়ার জন্য বেশ উপযুক্ত।

দারাগাঁও

রামধুরা– সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ৫৫০০ ফুট উপরে অবস্থিত এই গ্রাম। চারিদিকে পাহাড়ে ঘেরা এই গ্রাম আর পাশ দিয়ে একটা শান্ত তিস্তা নদী বয়ে চলে। পর্যটকরা প্রায় সারা বছরই এই গ্রামে যায়, তবে বসন্তকালে নানা ধরনের পাহাড়ি ফুল এই গ্রামের প্রাকৃতিক শোভাকে অনেক বেশি বাড়িয়ে তোলে।

রামধুরা

লামাহাট্টা– দার্জিলিং থেকে প্রায় ২৩ কিলোমিটার দূরে গেলে এই গ্রামে পৌঁছানো যায়। এই গ্রামে নানারকমের পাহাড়ি গাছ, ফুল দেখতে পাওয়া যায়। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে এই জায়গাটার উচ্চতা প্রায় ৫৭০০ ফুট। এখানকার প্রধান আকর্ষণ হিসেবে রয়েছে একটি ট্যুরিজম পার্ক। এছাড়া আরও একটি আকর্ষণ রয়েছে যা এখান থেকে দেখা যায়,সেটি হলো বিশ্বের উচ্চতম শৃঙ্গ কাঞ্চনজঙ্ঘা।

লেপচাজগত – দার্জিলিং থেকে প্রায় ১৯ কিলোমিটার দূরে ঘন অরণ্যে মোড়া এই লেপচাজগত। এখানে লেপচা উপজাতির বাস। অরণ্যপ্রেমী মানুষরা এই জায়গাটাকে বিশেষভাবে পছন্দ করে তার কারণ এই অঞ্চলের বেশ অনেকটা জায়গা জুড়ে রয়েছে রিজার্ভ ফরেস্ট।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)