T20 World Cup: ব্যর্থতার কারণে গোটা সিলেকশন কমিটিকে সরিয়ে দিল BCCI

94
BCCI selection committee

বিশ্বকাপে (T20 World Cup) ভরাডুবির জের। ক্রিকেটার বা কোচের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়া হলেও বোর্ডের (BCCI) খড়্গ নেমে এল নির্বাচক কমিটির উপর। নির্বাচক প্রধান চেতন শর্মা-সহ তাঁর গোটা কমিটিকে ছেঁটে ফেলল বোর্ড। এমনটাই খবর একাধিক সংবাদসংস্থা সূত্রে।

নির্বাচক প্রধান হিসাবে চেতন শর্মার কাজ পছন্দ না হওয়ার একাধিক কারণ বোর্ড কর্তারা দেখাচ্ছেন। বলা হচ্ছে, ক্রিকেটারদের সঠিকভাবে ম্যানেজ করতে পারেননি তিনি। বহু ক্রিকেটার তাঁর আমলে জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন ঠিকই। কিন্তু এদের বেশিরভাগই নিয়মিত সুযোগ না পাওয়ায় নিজেদের জায়গা পাকা করে উঠতে পারেননি। বড্ড বেশি পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফলে ভারতীয় দলে এখন অধিক সন্ন্যাসীতে গাজন নষ্টের সমস্যা। বার বার ক্রিকেটারদের চোট, কাউকে বাদ দেওয়া হলে তাঁকে নিয়ে অস্পষ্টতা, ইত্যাদি বহু অভিযোগ রয়েছে চেতনের বিরুদ্ধে। সেকারণেই চেতনকে ছেঁটে ফেলার কথা ভাবা হচ্ছে বলে দাবি সূত্রের।

বিসিসিআই থেকে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিদায়ের পরই ভারতীয় দলের নির্বাচকপ্রধান চেতন শর্মার ভবিষ্যৎ নিয়ে বড়সড় প্রশ্ন উঠে গিয়েছিল। বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের ব্যর্থতার পর চেতনের বিদায় একপ্রকার নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। শুক্রবার বিসিসিআই সেই জল্পনাতেই সিলমোহর দিল। কিন্তু প্রশ্ন থাকছে, দলের ব্যর্থতার দায় কি শুধুই নির্বাচকদের উপর বর্তায়?

নির্বাচকদের চাকরি গেলে তো টিম ম্যানেজমেন্টের উপরও আঙুল ওঠা উচিত।আসলে চেতনের গোটা কার্যকালটাই বিতর্কে ঘেরা। বিশ্বকাপে চূড়ান্ত ব্যর্থতার পাশাপাশি তাঁর আমলেই বিরাট কোহলির সঙ্গে বোর্ডের সম্পর্কে তিক্ততা চরম পর্যায়ে পৌঁছায়। সেসময় নির্বাচক প্রধান হিসাবে চেতনের ভূমিকা প্রশ্নের মুখে পড়েছিল। আবার অভিযোগ উঠেছিল, তাঁর আমলে নির্বাচক কমিটির বৈঠকে নাকি বোর্ড সভাপতি হস্তক্ষেপ করেন। যদিও পরে সৌরভ নিজে সেই অভিযোগ নস্যাৎ করে দেন। তাতেও বিতর্ক থামেনি।