Nisith Pramanik: চুরির মামলায় গ্রেফতারি এড়াতে তৈরি অমিত শাহর ডেপুটি নিশীথ 

30

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামানিকের (Nisith Pramanik) বিরুদ্ধে আলিপুরদুয়ার আদালত জারি করেছে গ্রেফতারি পরোয়ানা। অবশেষে মুখ খুললেন অমিত শাহর সহকারী। শিলিগুড়িতে (Siliguri) তিনি বলেন আইন সবাইকে মানতে হবে। এর পরেই আলোচনা, তিনি আদালতে আত্মসমর্পণ করতে যাবেন। আইনজীবীরাও আগেই জানান, আত্মসমর্পণ করা ছাড়া আর কোনও পথ নেই নিশীথের। কারণ আইন অনুযায়ী সেটাই পথ।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও কোচবিহারের বিজেপি সাংসদ নিশীথ প্রামানিকের বিরুদ্ধে ২০০৯ সালে দুটি সোনার দোকানে চুরির মামলায় অভিযোগপত্রে নাম আছে। এই মামলার সময় তিনি তৃ়ণমূল কংগ্রেস ঘনিষ্ঠ ছিলেন। পরে বিজেপিতে যোগ দেন। কোচবিহার থেকে জয়ী হয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী হন।

২০০৯ সালে আলিপুরদুয়ার ও বীরপাড়ায় দুটি সোনার দোকানে চুরির মামলায় আলিপুরদুয়ার আদালতে নিশীথ প্রামানিকের হাজিরার কথা ছিল। কিন্তু শুনানির দিন তিনি হাজির ছিলেন না। নিশীথ প্রামানিকের আইনজীবীও ছিলেন না। এরপর বিচারক জারি করেন গ্রেফতারি পরোয়ানা। আগামী ৭ ডিসেম্বরের মধ্যে নিশীথ প্রামানিককে গ্রেফতার করার নির্দেশ দেন বিচারক। নির্দেশ বলা হয় পুলিশ যদি সেই সময়ের মধ্যে গ্রেফতার না করতে পারে তার জন্য জবাবদিহি করতে হবে।

গ্রে়ফতারি পরোয়ানার বিষয়ে শিলিগুড়িতে নিশীথ প্রামানিক বলেন, আইন সবার জন্য প্রযোজ্য। তিনি আইন মেনে চলবেন। তবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দাবি, সম্পূর্ণ মিথ্যে মামলা।

সম্প্রতি নির্বাচনী বিধি ভাঙায় অভিযুক্ত কেন্দ্রীয় সংখ্যালঘু উন্নয়ন প্রতিমন্ত্রী তথা আলিপুরদুয়ারের বিজেপি সাংসদ জন বার্লার নামে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছিল কোচবিহারের তুফানগঞ্জ মহকুমা আদালত। গত লোকসভা ভোটের সময় বার্লার একটি রাজনৈতিক সভা হয়েছিল সরকারি ভবনে। সেই মামলার শুনানিতে তিনি হাজির না থাকায় পরোয়ানা জারি হয়। বার্লা আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন নিয়েছেন।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)