TET Scam: ‘বেপাত্তা’ মানিকের কাছেই ‘বেনিয়মের’ সব তথ্য, CBI মরিয়া, উদ্বেগে তৃণমূল

48
Manik Bhattacharya

টেট কেলেঙ্কারিতে (TET Scam) কি গ্রেফতারিই ভবিতব্য মানিক ভট্টাচার্যের? তৃণমূলে উদ্বেগের পারদ সূচক বাড়ছে। আদালতের নির্দেশে বুধহারই TMC বিধায়ক তথা প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের প্রাক্তন সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যের নিজাম প্যালেসে হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ১৪ ঘন্টা পরেও এখনও মানিকের খোঁজ মেলেনি। সূত্রের খবর, নিয়োগে যে চরম দুর্নীতি হয়েছে সে সম্পর্কে অবগত মানিক। রক্ষাকবচ নিয়ে গ্রেফতারি এড়ানোর চেষ্টা করছেন। যদিও CBI সূত্রে খবর, দিল্লিতে রয়েছেন মানিক৷ চিঠি দিয়ে এমনই জানিয়েছেন বিধায়কের আইনজীবী। 

১৫ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও সিবিআই দফতরে হাজিরা দিলেন না মধ্যশিক্ষা পর্ষদের প্রাক্তন সভাপতি মানিক ভট্টাচার্য। কলকাতা হাইকোর্ট তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক এবং পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষা বোর্ডের (ডব্লিউবিবিপিই) প্রাক্তন সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যকে মঙ্গলবার রাত ৮টার মধ্যে সিবিআই-এর সামনে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়ার কয়েক ঘন্টা পরে, সুপ্রিম কোর্ট বুধবার বিকেল পর্যন্ত ভট্টাচার্যকে গ্রেপ্তারি থেকে স্বস্তি দেয়।

হাইকোর্ট এই নির্দেশ দেওয়ার পরেই ভট্টাচার্যের আইনজীবী শীর্ষ আদালতের দৃষ্টি আকর্ষণ করে যুক্তি দেন, যেহেতু বুধবার দুপুর ২টোয় একই বিষয়ে শুনানি হওয়ার কথা, তাই ওই সময় পর্যন্ত কেন্দ্রীয় সংস্থাকে তাঁর মক্কেলকে গ্রেফতার করা থেকে বিরত রাখা উচিত। সুপ্রিম কোর্ট তার যুক্তি গ্রহণ করে এবং বুধবার দুপুর ২টা পর্যন্ত ভট্টাচার্যকে গ্রেপ্তার হওয়া থেকে রক্ষাকবচ প্রদান করে।

এর আগে, ২০১৪ সালে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষায় অপটিক্যাল মার্ক রিকগনিশন (ওএমআর) শিটে কারচুপি ও নষ্ট করার অভিযোগে দায়ের করা একটি পিটিশনের প্রেক্ষিতে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের হাইকোর্টের বিচারপতির বেঞ্চ ভট্টাচার্যকে রাত ৮টার মধ্যে সিবিআই-এর মুখোমুখি হওয়ার নির্দেশ দেয়। তদন্ত প্রক্রিয়ায় সহযোগিতা না করলে ভট্টাচার্যকে গ্রেফতার করার স্বাধীনতাও কেন্দ্রীয় সংস্থাকে দিয়েছে বেঞ্চ।

২৩ শে সেপ্টেম্বর, ভট্টাচার্য এই বিষয়ে সিবিআই তদন্ত এবং ডব্লিউবিবিপিই সভাপতির চেয়ার থেকে ভট্টাচার্যকে অপসারণের নির্দেশ দেওয়ার হাইকোর্টের একটি আদেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। বুধবার দুপুর ২টায় এই মামলার শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে এবং ততদিন পর্যন্ত ভট্টাচার্য সিবিআই গোয়েন্দাদের গ্রেপ্তারসহ যে কোনও সমন্বিত পদক্ষেপ থেকে স্বস্তি পেয়েছেন।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)