এমন ছাগলের কথা জানেন? যে প্রায় ১৩০০০ ফুট পাহাড়ে অনায়াসে উঠে যায়

26

জাতিতে ছাগল (Mountain Goat) হলেও খাবারের খোঁজে এরা উঠে যায় প্রায় ১৩০০০ ফুট পাহাড়ের উচ্চতায়। হ্যাঁ এমনই বিস্ময়কর ছাগল দেখতে পাওয়া যায় উত্তর আমেরিকার কিছু পার্বত্য অঞ্চলে। দেখতে কিছুটা স্বাভাবিক ছাগল হলেও তা অনেকটা আলাদা। অত্যন্ত প্রতিকূল পরিবেশেও এই ছাগল টিকে থাকতে পারে। এই ছাগলের নাম মাউন্টেন গোট।

এই মাউন্টেন গোট প্রধানত উত্তর আমেরিকার (North America) পার্বত্য অঞ্চলে দেখা গেলেও পার্বত্য হিমালয় এবং আফগানিস্তানেও দেখতে পাওয়া যায়। এই প্রাণীটি গ্রামেগঞ্জে দেখতে পাওয়া ছাগলের থেকে আকার এবং আয়তনে বেশ অনেকটাই বড়। এগুলোর ওজন প্রায় ৪৫ কেজি থেকে ১৪০ কেজি পর্যন্ত হয়ে থাকে। একটা সদ্যোজাত মাউন্টেন গোট প্রায় তিন কেজির হয়ে থাকে। এদের গায়ে মোটা পুরু পশমে ঢাকা থাকে। তার জন্য এরা খুব বেশি ঠান্ডা যথা মাইনাস ৪০ ডিগ্রী সেলসিয়াও বেঁচে থাকতে পারে।।

এছাড়া খুব ঝড়ো হাওয়াতেও এরা নিজেদেরকে সামলাতে পারে। জন্মাবার কয়েক ঘন্টা পর থেকেই এরা পাহাড়ে চড়ার চেষ্টা করতে থাকে। এদের প্রজনন ক্ষমতা তাড়াতাড়ি হয়। বয়স ৩০ মাসে পৌঁছলেই একটি মাউন্টেন গোট প্রজননে সক্ষম হয়। মোটামুটি অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত চলে এদের প্রজননকাল। প্রজননের সময় পেরোলেই পুরুষ আর মেয়ে মাউন্টেন গোট আলাদা আলাদা দলে বিভক্ত হয়ে যায়। খুব বেশি পরিমাণ দুর্যোগ বা প্রতিকূল পরিবেশে ওরা নিজেদেরকে বাঁচিয়ে রাখতে পারে। এই মাউন্টেন গোট মোটামুটি ১২ থেকে ১৫ বছর পর্যন্ত বেঁচে থাকে। কিন্তু এদের বেশির ভাগেরই দুর্ঘটনার কারণে মৃত্যু হয়।

এদের সারা শরীরে প্রায় ৪০ কেজির বেশি উল পাওয়া যায়।তবে এদের গায়ের লোম যতই মোটা হোক না কেন তা কোন ভাবে ব্যবসায়ীক কাজে লাগানো যায় না। তার কারণ এরা পোষ মানে না পাহাড়ি এলাকার প্রাণী হওয়ায় এরা প্রচন্ড হিংস্র হয়। অত্যধিক খাঁড়া পাহাড় হলেও তারা খাবারের খোঁজে অনায়াসে তা দিয়ে উঠে যায়।