Sunday, January 29, 2023

Weather update:: আর্দ্র হাওয়ার সৌজন্যে বহাল বৃষ্টির আবহ

- Advertisement -

নিউজ ডেস্ক, কলকাতা: আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই আকাশ মেঘলা, তার মাঝে অল্প সূর্যের দেখা মিলছে। দিন দুয়েক আগে যেমন মেঘে পরিপূর্ণ ছিল দক্ষিণবঙ্গের আকাশ তা থেকে সামান্য কমেছে মেঘের আনাগোনা। তবে যে কোনও মুহূর্তেই আবারও বৃষ্টি হতে পারে। হাওয়া অফিস বলছে বিক্ষিপ্তভাবে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে দক্ষিণবঙ্গের সমস্ত জেলাতেই।

এদিন সকাল থেকে বৃষ্টি হয়নি। তবে বেলার দিকে এর সম্ভাবনা রয়েছে। বুধবার ঠিক এমনভাবেই দুপুরের দিকে অঝোরে বৃষ্টি হয় কলকাতার প্রায় সর্বত্রই।

বৃহস্পতিবার আকাশ আরও একটু পরিষ্কার হলেও তবে বৃষ্টির রেশ যে পুরোপুরি কাটেনি তা স্পষ্ট এমন সম্ভাবনা থেকেই , সৌজন্যে মৌসুমি অক্ষরেখা। আজ বৃহস্পতিবার মূলত, পাহাড়ের সমস্ত জেলায় হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে দার্জিলিং, কার্শিয়াং, কালিম্পঙ, আলিপুরদুয়ার, শিলিগুড়ি, জলপাইগুড়ি, কোচবিহারে।

- Advertisement -

আলিপুর আবহাওয়া দফতরের অধিকর্তা গনেশকুমার দাস জানিয়েছেন, “উত্তর পশ্চিম বঙ্গোপসাগর থেকে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপরে থাকা ওই বিশাল ঘূর্ণাবর্ত এখন বাংলাদেশ উপকূলের দিকে বেশিরভাগটাই সরে গিয়েছে তবে মৌসুমী অক্ষরেখা এখনও কিছুটা দক্ষিণবঙ্গের দিকে , পাশাপাশি আরও একটি ঘূর্ণাবর্ত আবারও সাগরে তৈরি হচ্ছে, যা বাংলা-ওডিশা উপকূল দিয়ে আসতে পারে। তাই আবারও আর্দ্র বাতাস রাজ্যে ঢুকছে তাই বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছেই। পাশাপাশি বৃষ্টি কম হলে থাকবে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি।”

মঙ্গলবার দিনভর ৮৪.৯ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়। বুধবার সারাদিনে ১৭.৬ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত বৃষ্টির পরিমাণ ১৬.৬ মিলিমিটার। বৃহস্পতিবার স্বাভাবিক রয়েছে কলকাতার তাপমাত্রা। কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৫.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৮.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে চার ডিগ্রি কম। আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৮ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৯১ শতাংশ।

বুধবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৪.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি কম। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৬.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিক। আর্দ্রতার পরিমান ছিল সর্বোচ্চ ৯৮ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৮৩ শতাংশ। মঙ্গলবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৪.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি কম। আর্দ্রতার পরিমান ছিল সর্বোচ্চ ৯৮ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৯৬ শতাংশ। অর্থাৎ আর্দ্র হাওয়ার আগমন শহরে বন্ধ হচ্ছে না তা স্পষ্ট করে দিচ্ছে এই অঙ্ক।