মালদহের কলেজে চাকরিতে বাধ্যতামূলক ‘হিন্দি’, প্রতিবাদে পথে বাংলাপক্ষ

263

নিউজ ডেস্ক: মালদহে গনি খান চৌধুরীর নামাঙ্কিত কেন্দ্রীয় সরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে হিন্দি না জানলে চাকরি হয়না, কমিয়ে দেওয়া হয় ভর্তিতে বাংলার ছাত্রছাত্রীদের কোটা, পালন করা হয়না গনি খান চৌধুরীর জন্মদিন। অন্যদিকে ধুমধাম করে পালিত হয় ‘হিন্দি দিবস’, পশ্চিমবঙ্গে অবস্থিত হলেও কলেজের সব ভবন ও সাইনবোর্ডে বাংলা ভাষায় লেখা নেই। এই ইস্যুগুলিকে কেন্দ্র করেই এবার পথে নামল বাংলাপক্ষ। 

আরও পড়ুন বিজেপির ষড়যন্ত্রের হাত থেকে বাংলাকে বাঁচাতে পথে নামল বাংলাপক্ষ

‘বাংলার মাটিতে বাঙালিকে বেদখল করার চেষ্টা করছে হিন্দি সাম্রাজ্যবাদী বিজেপির কেন্দ্রীয় সরকার। সেই লক্ষ্যেই উত্তরবঙ্গকে আলাদা রাজ্য ঘোষণা করার দাবি তুলেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। একইভাবে জঙ্গলমহলকেও আলাদা রাজ্য ঘোষণার দাবি তুলেছে পদ্মশিবির।’ মালদহের নারায়ণপুরে গনি খান চৌধুরী ইন্সটিট্যুট অফ ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনলজির সামনে বিশাল মিছিল করে এবং ডেপুটেশন দিয়ে তারই প্রতিবাদ জানাল বাংলাপক্ষ।

মালদহের নারায়ণপুরে গনি খান চৌধুরী ইন্সটিউট অফ ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনলজির সামনে বাংলাপক্ষর মিছিল।

আরও পড়ুন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ISIS জঙ্গি শামীমা এখন ফ্যাশন পোশাকে, লন্ডনে ফিরতে মরিয়া

বাংলাপক্ষর কর্মসূচীর দিন কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে কলেজে বাঙালি ছাত্রছাত্রীদের আসতে নিষেধ করা হয় বলে অভিযোগ এই সংগঠনের। কলেজ কর্তৃপক্ষও ডেপুটেশন নিতে প্রাথমিকভাবে অস্বীকার করলেও পরে তারা ডেপুটেশন গ্রহন করে। সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ‘এলাকার জমিহারা বাঙালি পরিবারের সদস্যরাও এই জমায়েতে যোগ দেয়।’

আরও পড়ুন বাংলাপক্ষের দাবি মেনে WBSEDCL-এ বাধ্যতামূলক হল বাংলা ভাষার পরীক্ষা

প্রতিবাদে উপস্থিত ছিলেন বাংলাপক্ষর সাধারণ সম্পাদক গর্গ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “আজ আমরা সহজ পাঠ পড়াতে এসেছিলাম। বাঙালির দাবি না মানলে বাংলাপক্ষ কঠিন পাঠ পড়াবে।” এই প্রতিবাদে অংশ নিতে কোচবিহার, উত্তর দিনাজপুর, হাওড়া, কলকাতা থেকেও বাংলাপক্ষর প্রতিনিধিরা এসেছিলেন। উপস্থিত ছিলেন বাংলাপক্ষর মালদা জেলা সম্পাদক মোহম্মদ রাফিক আহমেদ, মালদা বাংলাপক্ষর পর্যবেক্ষক শোয়েব আমিন প্রমুখ।