বাক্সভর্তি অজগর দেখে চোখ কপালে রেল পুলিশের

16

তিরিশটা অজগর! গোনাগুনতি শেষ করে ঘাম দিয়ে জ্বর ছাড়ল পুলিশ কর্মীদের। টাটানগর (Tatanagar) স্টেশনে সে এক কান্ড। বাক্সভর্তি অজগর কিলবিল করছিল। নীলাচল এক্সপ্রেস থেকে এক মহিলাকে অজগর পাচার (Python Smuggling) করার অভিযোগে আটক করা হয়েছে।

টাটানগর রেল পুলিশ জানিয়েছে, হাওড়া থেকে নীলাচল এক্সপ্রেসে  উঠেছিলেন এই মহিলা যাত্রী। তার একটি বাক্স দেখে সন্দেহ হয়। বাক্সটি পরীক্ষা করতেই দেখা যায় ভিতরে আছে সাপ।

  • নীলাচল এক্সপ্রেসের জেনারেল কামরায় উদ্ধার ৩০টি অজগর
  • বাক্সের মধ্যে সাপ ছাড়া আরও রকমারি পোকা মাকড়
  • রেল পুলিশ জানাচ্ছে, ধৃত মহিলার নাম দেবী চন্দ্র। সে পুণের বাসিন্দা

নাগাল্যান্ড থেকে হাওড়া এসে ট্রেনে করে সাপ ও বিভিন্ন কীট পতঙ্গ পাচার করছিল ওই মহিলা। নাগাল্যান্ড থেকেই ওই বাক্স ভর্তি সরীসৃপ এবং পোকা মাকড় নিয়ে আসছিল সে। সোমবার ঝাড়খণ্ডের টাটানগরে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

উদ্ধার করা সব প্রাণীর বাজার দর প্রায় ৫০ কোটি টাকা। ধৃত দেবী চন্দ্র জানান, তিনি নাগাল্যান্ড থেকে আট হাজার টাকার বিনিময়ে সাপ ও পোকামাকড় পাচার করছিলেন। হাওড়া থেকে দিল্লিতে বাক্সটি পৌঁছে দেওয়ার কথা ছিল।

ধৃত মহিলার বয়ান থেকে তথ্য নিয়ে এই পাচার চক্রের বাকিদের খোঁজ চলছে। নাগাল্যান্ড সহ উত্তর পূর্বাঞ্চলের বিভিন্ন রাজ্য থেকে বন্য প্রানী পাচার হয়। তবে এমন করে বাক্সভর্তি অজগর ও পোকামাকড় পাচার দেখে পুলিশও চমকে গেছে।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)