JNU: শিবাজি মহারাজকে অপমানের জেরে এবিভিপি ও বামপন্থী ছাত্র সংঘর্ষ

ফের একবার জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় (JNU) ক্যাম্পাসে অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদ (ABVP) এবং বাম ছাত্রদের মধ্যে সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে।

JNU: clash between ABVP and LEFT students

ফের একবার জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় (JNU) ক্যাম্পাসে অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদ (ABVP) এবং বাম ছাত্রদের মধ্যে সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে। জেএনইউ-তে হট্টগোলের জন্য ছাত্র পরিষদ এবং বাম ছাত্ররা একে অপরকে অভিযুক্ত করছে। বিদ্যার্থী পরিষদের ছাত্ররা বলছেন, আজ ছত্রপতি শিবাজি মহারাজের জন্মবার্ষিকীতে এবিভিপির পক্ষ থেকে একটি শ্রদ্ধা সভার আয়োজন করা হয়েছিল। এই সময় বামপন্থীরা JNU ক্যাম্পাস টেফলাসে ছত্রপতি শিবাজি জির মূর্তির অবমাননা করে।

এবিভিপি একটি বিবৃতি জারি করে বলেছে, আজ জেএনইউ-তে অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদের কর্মীরা জেএনইউ-এর টেফলসে ছত্রপতি শিবাজী মহারাজের মূর্তি তাঁর জন্মবার্ষিকীতে স্থাপন করেছে। বাম দলগুলি এই সত্যটি পছন্দ করেনি যে কীভাবে তাদের মতাদর্শের নয় এমন কোনও ছবি টেফলসে ব্যবহার করা যেতে পারে, তাই তারা জেএনইউতে তাঁর ছবির অপমান করেছে।

https://video.incrementxserv.com/vast?vzId=IXV533296VEH1EC0&cb=100&pageurl=https://kolkata24x7.in&width=300&height=400

JNU: clash between ABVP and LEFT students

জওহরলাল নেহরু ইউনিভার্সিটির ছাত্র ইউনিয়ন বলছে ভিন্ন কথা। জেএনইউএসইউ বলেছে যে এবিভিপি আবারও টেফ্লাসে ছাত্রদের উপর হামলা করেছে। সোলাঙ্কির বাবার ডাকে মোমবাতি মিছিলের পরপরই এই দর্শন করা হয়। জেএনইউএসইউ বলেছে যে জাতি বৈষম্যের বিরুদ্ধে আন্দোলনকে লাইনচ্যুত করার জন্য এবিভিপি আবার এটি করেছে।

বিদ্যার্থী পরিষদ জানিয়েছে, আপাতত প্রশাসনের তরফে জেএনইউ-এর লাইট কেটে দেওয়া হয়েছে। জেএনইউ ক্যাম্পাসে হট্টগোলের পরে দিল্লি পুলিশ প্রচুর সংখ্যায় ক্যাম্পাসে পৌঁছেছে। বর্তমানে উভয় সংগঠনের শিক্ষার্থীরা শান্ত হয়েছে।