Gujarat Bridge collapse: মোদীকে খুশি করতেই তড়িঘড়ি সেতু সংস্কার, গুজরাটে মৃত্যু মিছিলে রাজনৈতিক বিতর্ক

42
  • বায়ুসেনা ও নৌসেনার সঙ্গে NDRF যৌথভাবে উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে  (Gujarat Bridge Collapse)
  • নিহতদের দেহ জমা হচ্ছে নদী তীরে

গুজরাট বিধানসভা নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রী মোদীর (Modi) সফরের মাঝে মোরবি জেলার ১৪২ বছরের পুরনো সেতু তড়িঘড়ি সংস্কার করে খুলে দেওয়া হয়। এর পর সেই সেতুতে ফের পর্যটকদের সমাগম হয়। রবিবার মোরবি জেলার মচ্ছু নদীতে সেতুটি সংস্কারের পর ভেঙে পড়ল (Gujarat Bridge Collapse)। ভোটের আগে মোদীকে খুশি করতেই এমন তড়িঘড়ি সেতু সংস্কার হয়েছে বলে অভিযোগ।

সেতু বিপর্যয়ে পর্যটকদের মৃত্যু সংখ্যা ক্রমাগত বাড়ছে। ভয়াবহ সেতু বিপর্যয় হয়েছে। রবিবার সন্ধে নাগাদ মোরবি জেলার মাচ্চু নদীর উপর সেই সেতু হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে। উপরে থাকা সকলেই নদীতে পড়ে যান। শুরু হয়েছে উদ্ধার। ভেঙে পড়া সেতুর তলায় কতজন চাপা পড়েছেন তার হিসেব নেই।

  • গুজরাটে ভয়াবহ সেতু বিপর্যয়ে বহু নিখোঁজ
  • কমপক্ষে ৪০০ জনকে নিয়ে সেতু ভেঙেছে
  • নিহতের সংখ্যা বাড়ছে শতাধিক নিখোঁজ। বেসরকারি হিসেবে ৯০ জনের মৃত্যু আশঙ্কা
  • রাজ্য ও কেন্দ্রের তরফে ক্ষতিপূরণ ঘোষণা

বিস্তারিত পড়ুন:

গুজরাট বিধানসভা ভোটের জন্য নিজের রাজ্যে সফর করছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। তাঁর গুজরাট সফরের মধ্যেই সেতু বিপর্যয়ে বিব্রত বিজেপি। সাম্প্রতিক সময়ে এত বড় বিপর্যয় আর ঘটেনি।          

পিটিআই জানাচ্ছে, মোরবি জেলায় সেতু ভেঙে পড়ার সময় ওপরে শতাধিক মানুষ ছিলেন। অনেকেরই নদীতে  তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এই সেতু মেরামতি করে চার দিন আগে ফের খুলে দেওয়া হয়। আর পাঁচ দিনের মাথায় সেই সেতু ভাঙল। 

ভেঙে পড়া সেতুর তলা থেকে আহতদের বের করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। কত জন নিখোঁজ, তা-ও জানা যায়নি। 

পিটিআই জানাচ্ছে, সেতু ভেঙে পড়ার সময় ওপরে শতাধিক মানুষ ছিলেন। অনেকেরই নদীতে কয়েকজনের তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এই সেতু মেরামতি করে চার দিন আগে ফের খুলে দেওয়া হয়। আর পাঁচ দিনের মাথায় সেই সেতু ভাঙল।

gujrat

বিধানসভা ভোটের আগে এমন দুর্ঘটনার পর রাজ্যের শাসক বিজেপির দিকে সংস্কারমূলক কাজের ফিরিস্তি দেওয়ার পর তীব্র কটাক্ষ শুরু হয়েছে। দিন কয়েক আগে এই সেতু সংস্কার করে পুনরায় চালু করা হয়। সেই তথ্য দিয়ে নির্বাচনী প্রচার করেছে বিজেপি।

(সব খবর, সঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে পান। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram এবং Facebook পেজ)