ভোটের মুখে ক্যান্সারে আক্রান্ত BJP সাংসদ

লোকসভা ভোটের মুখে এবার জোরদার ধাক্কা খেল বিজেপি (BJP) দল। ভোটের আগে ক্যান্সার ধরা পড়ল হেভিওয়েট বিজেপি সাংসদের। আর তিনি হলেন সুশীল কুমার মোদী (Sushil…

লোকসভা ভোটের মুখে এবার জোরদার ধাক্কা খেল বিজেপি (BJP) দল। ভোটের আগে ক্যান্সার ধরা পড়ল হেভিওয়েট বিজেপি সাংসদের। আর তিনি হলেন সুশীল কুমার মোদী (Sushil Kumar Modi) আজ বুধবার নিজের এক্স হ্যান্ডেলে পোস্ট করে জানান সুশীল কুমার মোদী।

সাংসদ লেখেন, ‘আমি গত ছয় মাস ধরে ক্যান্সারের সাথে লড়াই করছি। এখন ভাবলাম সময় এসেছে সকলকে জানানোর। লোকসভা নির্বাচনে আমি কিছুই করতে পারব না। আমি প্রধানমন্ত্রীকে সব জানিয়েছি। দেশ, বিহার ও দলের প্রতি সর্বদা কৃতজ্ঞ থাকবো।’

বেশ কিছু সময় ধরেই সুশীল মোদীকে কোনো সরকারী অনুষ্ঠান বা সংবাদমাধ্যমের সামনে দেখা যায়নি। অনেকেই ভাবছিলেন যে হয়তো নির্বাচনী টিকিট না পেয়ে দলের প্রতি অভিমান হয়েছে তাঁর। কিন্তু এবার প্রকাশ্যে এল বড় খবর। সুশীল কুমার মোদী বিহারের উপমুখ্যমন্ত্রী ছিলেন এবং রাজ্যসভার সাংসদও ছিলেন। কিন্তু এ বছর তাঁকে রাজ্যসভায় মনোনয়নের জন্য পাঠানো হয়নি। এ ছাড়া তিনি দলের বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। ৩৩ বছরের জনজীবনে তিনি রাজ্যসভা, লোকসভা, বিধানসভা ও বিধানসভাসহ চারটি কক্ষের সদস্য ছিলেন। তিনি পাঁচ বছর আইন পরিষদে বিরোধী দলনেতা হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

বিহারে উপমুখ্যমন্ত্রীর পাশাপাশি অর্থমন্ত্রীও হয়েছেন সুশীল কুমার মোদী। অর্থমন্ত্রী হিসেবে তাঁকে রাজ্যের অর্থমন্ত্রীদের অথরাইজড কমিটির চেয়ারম্যান করা হয়। জাপা আন্দোলনে সক্রিয় হয়ে এবং জরুরি অবস্থার সময় ১৯ মাস জেলে থাকার পর যখন তিনি মূলধারার রাজনীতিতে যোগ দেন, তখন তিনি টানা ১৫ বছর বিধায়ক ছিলেন। তিনি ৯ বছর আইন পরিষদের সদস্য ছিলেন। তিনি লোকসভায় ভাগলপুর লোকসভা কেন্দ্রের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। রাজ্যসভার সদস্য হওয়ার পর তিনি হাউসের আইন ও বিচার কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন।