Friday, February 3, 2023

Tripura Election 2023: ভোটের আগেই বিরাট ভাঙন, বিজেপি জোট ছাড়তে হুড়োহুড়ি

- Advertisement -

কী এমন হলো যে সরকারের মেয়াদ ফুরোনোর আগেই বিজেপি জোট ছাড়তে মরিয়া শরিক দল। বিরোধী সিপিআইএম জল মাপছে। ত্রিপুরা বিধানসভা নির্বাচন (Tripura Election 2023) আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি। মূল লড়াই রাম বনাম বাম (BJP vs CPIM)

বিস্তারিত পড়ুন
বিধানসভা নির্বাচনের আগে শরিকি বিপর্যয়ে জেরবার ত্রিপুরার শাসক দল বিজেপি। পরিস্থিতি ইঙ্গিত দিচ্ছে বাংলাভাষী প্রধান এ রাজ্যে উপজাতি সংগঠন সরাসরি বিজেপির পক্ষ ত্যাগ করতে চলেছে। সোমবারেই কি ভাঙন ? আগরতলার রাজনৈতিক মহলে চরম আলোড়ন পড়ে গেছে এই প্রশ্নে। জানা যাচ্ছে জোট সরকারের শরিক দল আইপিএফটি আর কোনওভাবেই বিজেপির পক্ষে থাকতে চাইছে না।

গত বিধানসভা নির্বাচনে ত্রিপুরায় আইপিএফটি দলটিকে সাথে নিয়ে পার্বত্য এলাকায় সিপিআইএমের দুর্গে বিরাট ধাক্কা দিয়েছিল বিজেপি। সেই ধাক্কায় টানা ২৫ বছরের বাম শাসন শেষ হয়। এ রাজ্যে সরকার গড়ে বিজেপি-আইপিএফটি জোট। তবে সরকারের পূর্ণ মেয়াদের আগেই একাধিক আইপিএফটি বিধায়ক দলত্যাগ করেছেন। এবার নির্বাচনের একেবারে সামনে এসে আইপিএফটি সরাসরি বিজেপি জোট থেকে বেরিয়ে নতুন উপজাতি দল তিপ্রা মথার সাথে মিশে যেতে পারে বা জোট করতে পারে। তিপ্রা মথার প্রধান প্রদ্যোত দেববর্মণের সাথে আইপিএফটি দলটির কথাবার্তা পাকা হয়ে গেছে বলেই খবর।

- Advertisement -

ত্রিপুরার পার্বত্যাঞ্চলে এখন তিপ্রা মথার শক্তি। আইপিএফটি কার্যত কাগজে কলমে অস্তিত্ব। আর উপজাতি এলাকায় বিজেপিরও শক্তি নেই। সেক্ষেত্রে উপজাতি দল কাছে টানতে অসমের মুখ্যমন্ত্রী ড. হিমন্ত বিশ্বশর্মাকে দূত হিসেবে নামিয়েছিলেন জে পি নাড্ডা। হিমন্তর কথায় চিঁড়ে ভেজেনি। গ্রেটার তিপ্রাল্যান্ড ইস্যুতে লিখিত প্রতিশ্রুতি চেয়েছে তিপ্রা মথা। আলোচনার ইতি সেখানেই হয়। এদিকে আইপিএফটি বিধায়করা ভোটে নিজেদের হাজিরা দিতে তিপ্রা মথার সাথেই মিশে যেতে মরিয়া। সবমিলে বিজেপি ভোটের আগে একলা হয়ে যেতে বসেছে।

ত্রিপুরায় বিরোধী দল সিপিআইএম ও কংগ্রেসের মধ্যে আসন সমঝোতা হওয়ার পর থেকে সমতল এলাকায় বিজেপি বিরোধী ভোট এক জায়গায় আসছে বলেই মনে করা হচ্ছে। আর পার্বত্য এলাকায় উপজাতি স্বশাসিত পরিষদ প্রধান প্রদ্যোত দেববর্মণ রাজ্যে ভোট সন্ত্রাসের জন্য বিজেপিকে সরাসরি দায়ি করেছেন। বিরোধী বাম-কংগ্রেস জোটের দিকেই তাঁর ঢলে পড়ার সম্ভাবনা বাড়ছে।